ভূরুঙ্গামারীতে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া নগদ অর্থ বিতরণে অনিয়ম

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি | বাংলা পত্রিকা স্পেশাল
প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ৬ মে ২০২১ | ০৬:০৮:৩৩ পিএম
ভূরুঙ্গামারীতে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া নগদ অর্থ বিতরণে অনিয়ম দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে ভূরুঙ্গামারী উপজেলার চর ভূরুঙ্গামারী ইউনিয়নে করোনাকালীন সময়ে অসহায় দুঃস্থ ও কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের মাঝে রমজান উপলক্ষে নগদ অর্থ বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।

চর ভূরুঙ্গামারী ইউনিয়ন পরিষদে স্বাস্থ্য বিধি না মেনে এবং কোনো নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে বিভিন্ন প্রকার অনিয়মের মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া রমজান উপলক্ষে নগদ অর্থ বরাদ্দের টাকা বিতরণ করা হয়।

অত্র ইউনিয়নে মোট ৬২৫ জন সুবিধাভোগীর প্রতিজনকে ৪০০ টাকা করে মোট ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা দেওয়ার কথা থাকলেও বরাদ্দের পুরো টাকা গরীব অসহায়দের মাঝে বিতরণ না করে অধিকাংশ টাকা চলে গেছে মেম্বার চেয়ারম্যানের পকেটে।

মেম্বারদের নিজের নামে, পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নাম, এমনকি আত্মীয় স্বজনের নাম দিয়ে এ অর্থ আত্মসাতের ঘটনা ঘটেছে। নামের তালিকায় দেখা যায় ৫ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আ: আজিজের নাম যার ক্রমিক নং (১৪৫) তার দুই ছেলে মামুন ও মানিক, ক্রমিক নং (১৪৯,১৪৮) ছোট ভাই আজাদুল (১৪৪), ছোট বোন নাছিমা বেগম (১৩৯), স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (১৪৩) সহ তালিকায় নিজেদের বেশ কয়েকটি নাম রয়েছে।

অপরদিকে ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম, পিতা মৃত ছফর (২৯০) স্ত্রী জাহানারা বেগম (২৯৪), ছেলে আ: রাজ্জাক (২৮৮), ভাই বজলু (২৮৯), ও ভাই বউ কদরভান (২৯২) সহ আরো অনিয়ম রয়েছে। ৭,৮,৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার মমতাজ বেগম স্বামী নুরু (৩৬৯), ছেলে সুমন (৩৮০), স্বামী নুরু পিতা মোকছেদ (৩৮৩) ও তার মেয়ে সাথী বেগমে (৩৮৫) নাম সহ তালিকায় বহু অনিয়ম রয়েছে।

চেয়ারম্যানও অনিয়মের লম্বা তালিকা থেকে বাদ পড়েনি। আত্মীয়-স্বজনদের নাম দিয়ে তুলে নিয়েছে হাজার হাজার টাকা। তালিকায় দেয়া কয়েকটি মোবাইল নাম্বরে যোগাযোগ করে দেখা যায়, তালিকায় থাকা সুবিধাভোগিদের মোবাইল নম্বর না দিয়ে দূর্নীতি-অনিয়ম কারী সিন্ডিকেটদের মোবাইল নম্বর দেয়া রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কিছু সুবিধা বঞ্চিত ভুক্তভোগীরা জানায়, উপকার ভোগিদের ২/৩  টি করে নামের তালিকা দিয়ে মেম্বার ও চেয়ারম্যান একটি করে স্লিপ রেখে দিয়ে নিজেরাই উক্ত টাকা তুলে নিয়েছে।

এ ব্যাপারে চর ভূরুঙ্গামারী ইউ,পি চেয়ারম্যান এ,টি,এম ফজলুল হক জানান, নিজেদের কিছু লোকের নাম দেওয়া ছিল তাদের টাকা দিয়ে দেওয়া হয়েছে। মেম্বারদের ভিজিডি কার্ডে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় তারা আমার নামে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। উপজেলা চেয়ারম্যানের মাধ্যমে দেওয়া ২৫ টি নামের টাকা জমা আছে, তালিকা পেলে বিতরণ করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপক কুমার দেব শর্মা জানান, করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষ ও অসহায় দুঃস্থদের মাঝে এ নগদ অর্থ বিতরণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এর বিপরীতে অনিয়ম করে থাকলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

রফিকুল হক রফিক/এসআর/বাংলাপত্রিকা

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন