কেমন জীবন যাপন করছেন শেরপুরের অসহায় ও বিধবা নারীরা

শেরপুর সদর প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: রবিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২১ | ০৫:২৭:০৬ পিএম
কেমন জীবন যাপন করছেন শেরপুরের অসহায় ও বিধবা নারীরা জীবন এ যেন একটি যুদ্ধ। ছেলে, মেয়ে, বয়স্ক কিংবা অসুস্থ, জীবিকার তাগিদে সবাই কিছু না কিছু করে তাদের সংসার চালায়। তেমনি শেরপুরের কয়েকজন বিধবা, অসুস্থ ও হতদরিদ্র মহিলা রয়েছে। যারা জীবিকার তাদিগে বিভিন্ন কাজে সকাল সন্ধ্যা লিপ্ত থাকে। গিয়েছিলাম পাকুরিয়া ইউনিয়নের চৈতনখিলা কফিল উদ্দিনের ধানের খলায়, যেখানে সকাল সন্ধ্যা কাজ করে ১৫ থেকে ২০ জন হতদরিদ্র মহিলা। তাদের কাজ হচ্ছে সকাল ৮ টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ধান মারানো। বেতন পান ১৫০ থেকে ১৭০ টাকা মাত্র।

সেখানে কর্মরত কয়েকজন মহিলার সাথে কথা বললে তারা জানায় তাদের বিভিন্ন সমস্যা রয়েছে তার পরও জীবিকার তাগিদে কর্ম কওে জীবন পরিচালনা করতে হয়। তাদের মধ্যে মালেকা নামের একজন মহিলা স্বামী সবিদুল তার তিন সন্তান এর মধ্যে ২ জন ছেলে আর মেয়ে ১জন ছেলেদের বিয়ে করানোরপর থেকে তারা যার যার সংসার নিয়ে ব্যস্ত আর মেয়েটারও বিয়ে হয়ে গেছে স্বামীটাও শারিরিক ভাবে অনেকটা দূর্বল। তাই সেখানে সে কাজ করে যা পায় তা দিয়েই সংসার চলে তার।

সমলা, সে দীর্ঘদীন যাবৎ হাপানি রোগে ভুগছেন সমলা। তিনি জানান, আমার শরীরের অবস্থা বেশি ভালো না। স্বামী সে যেন থেকেও নেই, বয়স হওয়াতে কোন কাজ কর্ম করতে পারে না। আমি সারাদিন কাজ করে যে উপার্জন করে তা দিয়েই কোন রকম ভাবে সংসার চলে আমার।

ফিরোজা, স্বামী মাহমুদ আলী তার কোন সন্তান নেই। শুরুটায় যেন কষ্টের, তার কোন ছেলে মেয়ে নেই। নিঃসন্তান জীবন জাপন করার মত কষ্ট আর কিছুই হতে পারে না। স্বামী একদিন কাজ করে তো অন্যদিন নেই। ফিরোজা যা আয় করেন তা দিয়েই তাদের সংসার চলে।

এভাবেই আরও অনেক হতদরিদ্র মহিলারা তাদের জীবন পার করছেন, এভাবেই কাটছে তাদের জীবন, জীবনের সাথে যুদ্ধ করেই, তাদের মত হাজারও মানুষের জীবন পরিচালনা করতে হয়।

মোঃ সুলতান হোসাইন/এসআর/বাংলাপত্রিকা

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন