চট্টগ্রামে আড়তে সরকারি চাল, ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার

চট্টগ্রাম ব‍্যুরো | সারাদেশ
প্রকাশিত: বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১ | ০৭:৫৭:২৩ পিএম
চট্টগ্রামে আড়তে সরকারি চাল, ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার ভারত থেকে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের আমদানিকৃত চালের ট্রাক চট্টগ্রাম বন্দর জেটি খাদ্য অফিস থেকে নোয়াখালীর চরভাটা এলএসডি গোডাউনে যাওয়ার কথা। কিন্তু সেখানে না গিয়ে ঢুকে পড়েছে চট্টগ্রামের পাহাড়তলী চাল বাজারের আড়তদার মেসার্স মাহী ট্রেডার্সের মালিক আব্দুল বাহারের গোডাউনে। সরকারি এসব চাল সাধারণ বস্তায় ভরে খোলাবাজারে বিক্রিও করা হয়। সবচেষ্টার পরও শেষ রক্ষা হয়নি ব্যবসায়ী বাহার মিয়ার।

বুধবার (২১ এপ্রিল) দিনগত রাত ১টায় তাকে সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ৭০ হাজার কেজি চালসহ আটক করে নগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

বুধবার (২১ এপ্রিল) দুপুরে মহানগর গোয়েন্দা (বন্দর) পুলিশ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান বন্দর বিভাগের উপ-কমিশনার ফারুল উল হক।

তিনি আরও জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডিবি এসি (বন্দর) মো. ইয়াসির আরাফাতের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে একটি ট্রাকের ২৬০ বস্তা এবং গোডাউনের ভেতরে থাকা ১ হাজার ১৪০ বস্তাসহ সর্বমোট ১৪শ বস্তা সরকারি আমদানিকৃত চাল উদ্ধার করা হয়। যার ওজন ৭০ হাজার কেজি। এ সময় একটি ট্রাক জব্দ করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ আড়তদার আব্দুল বাহার মিয়া সরকারি চালের বস্তা পরিবর্তন করে নিজস্ব সিল সম্বলিত বস্তায় প্যাকেটজাত করে খোলাবাজারে বিক্রির করার কথা স্বীকার করেছে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে উপ-কমিশনার ফারুল উল হক বলেন, তদন্তে যেসব ব্যবসায়ীর নাম আসবে তাদের মামলায় আসামি করা হবে।

ওই ব্যবসায়ী সরকারি চাল ক্রয় সংক্রান্ত সিন্ডিকেটের সদস্য কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এই ধরনের কাজগুলো কেউ একা করে না। প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি, তিনি সরকারি চাল ক্রয় সিন্ডিকেটের সদস্য।

জানা গেছে, এই চালের বাহক সবুজ এন্ড ব্রাদার্স। চাল পাঠানোর সাক্ষর রয়েছে চট্টগ্রাম জেটি খাদ্য অফিসের সহকারী নিয়ন্ত্রক এস. এম নূরউদ্দিনের। আব্দুল বাহার মিয়া বাহক সবুজ এন্ড ব্রাদার্সের কাছ থেকে ২৬০ বস্তার চাল প্রতিকেজি ৪০ টাকা করে কিনেছেন। বাকি চাল বান্দরবানসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এসেছে। খোকন নামের একব্যক্তি বন্দর থেকে ২৬০ বস্তার চালের চালান বের করে দেন বলে জানান আব্দুল বাহার মিয়া।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ডিবি বন্দর বিভাগের এডিসি হুমায়ুন কবির, এসি মো. ইয়াসির আরাফাত প্রমুখ।

মোঃ সিরাজুল মনির/এনপি/বাংলাপত্রিকা

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন