মির্জাগঞ্জে বসত ঘরবাড়িকে নাল জমি বলে মিথ্যা মামলায় হয়রানির অভিযোগ

মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: শনিবার, ১৩ মার্চ ২০২১ | ০৯:১৯:২৬ পিএম
মির্জাগঞ্জে বসত ঘরবাড়িকে নাল জমি বলে মিথ্যা মামলায় হয়রানির অভিযোগ
মোসাঃ ছেতারা বেগম স্বামী মৃত্যু মজিবুর মৃধা গংদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে।

ভুক্তভোগী শামীম মোল্লা (৪৫) পিতা মৃতঃ আতাহার মোল্লা সাং পূর্ব সুবিদ খালী, পোস্ট সুবিদ খালী, উপজেলা মির্জাগঞ্জ, জেলা পটুয়াখালী জানান। আমি এবং আমার ভাই মৃত নাসির মোল্লার নামে পূর্ব সুবিদখালী গ্রামের মৃত্যু অন্নাত গাজির ছেলে মোঃ আদম গাজির কাছ থেকে আমার বাবা ২৭/৫/৮১ ইং সনে ১২৫ নং খতিয়ানের ১২৫০ নং দাগের (২০) বিশ শতাংশ জমি ক্রয় করেন।

দলিলে আমাদের দুই ভাইয়ের নামই (মোঃ শামীম মোল্লা এবং নাসির মোল্লা) রয়েছে এবং বালামে ও আমাদের দুই নামই রয়েছে। বর্তমানে ক্রয় কৃত জমিতে আমাদের বসতবাড়ি, পুকুর, গাছপালা রয়েছে। ৮১ সন থেকে অদ্যাবধি পর্যন্ত আমরা উক্ত জমি ভোগদখল করতেছি। গত১৩/১/২০২১ইং তারিখ আমি এবং আমার দুই বোন কে বিবাদী করে এবং সেতারা বেগম স্বামী মৃত্যু মজিবুর মৃধা গং বাদী হয়ে মির্জাগঞ্জ সহকারী জজ আদালতে দলীল সংশোধন চেয়ে হয়রানি মূলক একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করে আমাদের সামাজিক ভাবে হেয় এবং আর্থিক ক্ষতি সাধন করার পাঁয়তারা চালাচ্ছে। তাদের নামে কোন রেকর্ড বা দলিল নেই। আমার পুকুরে বর্তমানে প্রায় দুই লক্ষ টাকার বিভিন্ন প্রজাতির মাছ রয়েছে। আমি ফতুল্লা একটি মিলে চাকুরী করি। বাড়িতে আমার স্ত্রী, ছোট ছেলে এবং একটি মেয়ে থাকে।

বাদী পক্ষের ১। মোঃ ইউনুস মৃধা ২/মোঃ কিসলু মৃধা উভয় পিং মৃত্যু  মহব্বত আলী মৃধা, ৩/মোসাঃ ফিরোজা বেগম স্বামী আব্দুল লতিফ, ৪/ সেতারা বেগম স্বামী মৃত মজিবুর মৃধা ৫/ নুপুর বেগম স্বামী সুজন হাওলাদার ৬/ ঝুমুর বেগম স্বামী মোঃ সোহাগ হোসেন ৭/ ডলি বেগম পিং মৃত্যু  মজিবুর মৃধা ৮/ মোঃ তসলিম মৃধা পিং ইউনুস মৃধা ৯/ মোঃ মিজানুর মৃধা (৩০) পিং ইউনুস মৃধা, মোঃ মাসুম মৃধা (৩২) পিং কিসলু মৃধা গং মামলা করে এসে আমাদের অনুপস্থিতিতে আমার পুকুরে ঘাট দিয়ে রেখেছে।

আমার ঘরের সামনে একটি ঘর তোলার জন্য চেস্টা চালাচ্ছে। আমি পরে ঘাট দেখে জিজ্ঞেস করলে বাধা দিলে আমার ঘরের সামনে এসে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে  এবং খুন, জখম, ঘর ডাকাতি, গরু চুরি, পুকুরের মাছ ধরে নিয়ে যাওয়া, সংঘবদ্ধ ভাবে হামলা সহ আমি, আমার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন, ইভটিজিং বা  শ্লীলতাহানির মিথ্যা মামলা দেয়ার হুমকি ধমকি দিচ্ছে।উল্লিখিত মিজানুর  হুমকি দিয়ে বলে যত টাকা লাগে লাগুক শামীম মোল্লার ভূড়ি ঝুলাইয়া দিমু।সে একজন মাদকাসক্ত, মাদক সেবন এবং বিক্রয় কারি। ইতিপূর্বে আমার প্রায় এক লক্ষ ষাট হাজার টাকা মূল্যের দুটিগরু কে বা কাহারা চুরি করে নিয়ে গেছে যা এলাকার সবাই জানেন। আমি এবং আমার পরিবারের সদস্যরা বর্তমানে জান মালের নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছি।

বাদী ছেতারা বেগম বলেন, তারা এই জমি প্রায় ৪০( চল্লিশ) বছর পর্যন্ত ভোগ দখল করে আসছে। সিডরের পর ঘর বাড়ি উঠাইয়া থাকতে আছে, পুকুর কাটছে আমরা এই জমি ভোগদখল করিনা। আমারে কিসলু মৃধা মামলার বাদী হইতে কইছে আমি হইছি। পামু কি না হ্যা মুই জানিনা।

এ ব্যাপারে মামলার তদন্ত অফিসার এসআই মোঃ সাইদুল ইসলাম বলেন, আদালতে মামলা হয়েছে বাদী, বিবাদী যেভাবে যে আছে রায়ের আগ পর্যন্ত সেভাবেই সে থাকবে কেউ বিশৃঙ্খলা করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মোঃ আসলাম হাওলাদার আবদুল্লাহ/এনপি/বাংলাপত্রিকা

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন