মহাদেবপুরে ৫ শতক জমির ধান কাটা নিয়ে সংঘর্ষে আহত ৪

মহাদেবপুর প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: রবিবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২০ | ০৫:২১:৪১ পিএম
মহাদেবপুরে ৫ শতক জমির ধান কাটা নিয়ে সংঘর্ষে আহত ৪
নওগাঁর মহাদেবপুরে মাত্র ৫ শতক জমিতে রোপনকৃত আমন ধান কাটানিয়ে বিবাদে সংঘর্ষে ৪ জন আহত হয়েছেন। আহতদের উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার (৬ ডিসেম্বর) দুপুরে নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার ভীমপুর গ্রামের মাঠে। ইতিমধ্যেই খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন পুলিশ।

আহতরা হলেন, জাহিদুল ইসলাম (৩৮), কফিল উদ্দিন (৫০), মাজেদ আলী মন্ডল (৬০) ও খাইরুল ইসলাম (৩৫)।

স্থানিয়রা জানান, মহাদেবপুর উপজেলার ভীমপুর গ্রামের কৃষক সফির উদ্দিনের রোপনকৃত ৫ শতক জমির পাকা আমন ধান কাটছিলেন তার ছেলে জাহিদুল ইসলাম ও ভাগ্না কফিল উদ্দিন এসময় ঐ বিরোধপূর্ণ জমিতে প্রতিপক্ষরা গিয়ে ধান কাটতে বাঁধাদিলে দু পক্ষের মাঝে হাসুয়া, কাচি ও লাঠিনিয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় ৪ জন আহত হলে উভয় পক্ষ আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করান।

এব্যাপারে কৃষক সফির উদ্দিন প্রতিবেদককে বলেন, ঐ মাঠে আমাদের ৩৭ শতক জমির মধ্যে  প্রায় ৩২ শতক জমিতে কলা ও আম গাছের বাগান রয়েছে এবং মাত্র ৫ শতক জমিতে আমন ধান রোপন করেছিলাম। আমি বয়স জনীত অসুস্থ হওয়ায় আমার ছেলে জাহিদুল ও ভাগ্না কফিল সেই জমির পাকা ধান কাটতে গেলে প্রতিপক্ষ মাজেদ আলী, খায়রুল ইসলাম, জোবায়ের, মালেকা, তোফাজ্জল হোসেন তফা ও আউব হোসেন দিপু সহ আরো কয়েকজন জমিতে গিয়ে ধান কাটতে বাঁধাদেন এবং আমার ছেলে ও ভাগ্নার উপর হামলা চালালে এসময় আমি মরিচ ক্ষেত থেকে দেখে চিৎকার দিলে আমার প্রতিবেশিরা ঘটনাস্থলে পৌছে আমার ছেলে জাহিদুলকে রক্তাক্ত জখম ও ভাগ্নাকে হাত ভাঙ্গা অবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করান।

অপরদিকে প্রতিপক্ষ মাজেদ আলী মন্ডলের ভাতিজা জুবায়েদ জানান, ঐ জমি নিয়ে বিরোধ চলছিলো, বিরোধপূর্ন জমিতে ধান কাটতে থাকলে আমার চাচা মাজেদ ও বড় ভাই খাইরুল প্রথমে গিয়ে ধান কাটতে নিষেধ করেন, তারপর নিষেধ না শুনে ধান কাটতে থাকলে সংঘর্ষ হয় এতে আমার চাচা মাজেদ আলী মন্ডল ও বড় ভাই খায়রুল আহত হলে তাদেরকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এব্যাপারে মহাদেবপুর থানার ওসি মোঃ নজরুল ইসলাম জুয়েল জানান, ধান কাটা ও বাঁধা দেওয়া নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনার খবর পাওয়ার সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়ছে জানিয়ে তিনি বলেন, এব্যাপারে অভিযোগ পেলে তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে দোষীদের বিরুদ্ধে।

অহিদুল ইসলাম/এসএ/বাংলাপত্রিকা

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন