বিপুল ভোটে চাঁদপুরে পৌর পিতা হলেন অ্যাড. জিল্লুর রহমান

মোঃ ফরিদ নাজমুল, ফরিদগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: শনিবার, ১০ অক্টোবর ২০২০ | ১০:৩৭:৫০ পিএম
বিপুল ভোটে চাঁদপুরে পৌর পিতা হলেন অ্যাড. জিল্লুর রহমান
চাঁদপুর পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে বিপুল ভোটে মেয়র হতে যাচ্ছেন  নৌকা প্রতীকের প্রার্থী অ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েল।

শনিবার সন্ধ্যায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৫২টি কেন্দ্রের মধ্যে ৪৫ টিরও  বেশি কেন্দ্রের বেসরকারি ফলাফলে তিনি এগিয়ে রয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আক্তার হোসেন মাঝি।

জেলা নির্বাচন অফিস জানায়, চাঁদপুর পৌরসভার ১৫টি ওয়ার্ডের ৫২টি কেন্দ্রে ৩শ’ ৫টি বুথে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে মোট ভোটার ১ লাখ ১৬ হাজার ৪শ’ ৮৭জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫৮ হাজার ১শ’ ৪৪জন এবং মহিলা ভোটার রয়েছে ৫৮ হাজার ৩শ’ ৪৩জন।

অনুষ্ঠিত পৌরসভা নির্বাচনে অধিকাংশ ভোট কেন্দ্রে ভোটারদের তেমন কোন উপস্থিতি দেখা যায়নি।যদিও সকাল থেকে অনেক ভোট কেন্দ্রে নারী পুরুষ সব ধরনের ভোটারদের উপস্থিতি ছিলো।কিন্তু সকাল সাড়ে ১০ টা ১১ টার পর থেকে পৌরসভার ১৫ টি ওয়ার্ডের বেশ কিছু কেন্দ্রে ভোটারদের তেমন একটা উপস্থিতি লক্ষ করা যায়নি।

তারপর থেকে স্ব স্ব কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রতিনিধিরা যে ক’জন ভোটারদের নিয়ে এসেছেন তারাই তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। এরপর দিনব্যাপী নির্বাচন চলাকালীন সময়ে থেকে থেকে ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে যান এবং তাদের পছন্দের প্রার্থীদের প্রতীকে ইভিএমের মাধ্যমে ভোট প্রদান করেন।

তবে কিছু কিছু কেন্দ্রে বেশ ক’জন নারী এবং পুরুষ ভোটার অভিযোগ করে বলেন, আমরা বহুবছর পর ভোট দিতে ভোট কেন্দ্রে এসেছি,এটা আমাদের খুবই আনন্দের একটি বিষয়।কেন্দ্রে এসে আমরা ভোটার আইডি কার্ড জমা দিয়ে ফিঙ্গার প্রিন্ট করার পর, বুথে ঢুকে ভোট দেয়ার সময় সেখানকার নির্ধারিত প্রতিনিধিগন ভোট দেয়ার নিয়ম দেখাতে গিয়ে তাদের আমাদের পছন্দের প্রার্থীর প্রতীকে ভোট না দিয়ে তাদের মনোনীত মেয়র প্রার্থী এবং কাউন্সিলর ও মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রতীকে ভোট দিয়েছেন। প্রকৃত পক্ষে আমরা আমাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারিআরনি। ইভিএমের মাধ্যমে ভোট দিতে এসেও আমাদেরকে মনের কষ্ট নিয়ে ফিরতে হয়েছে।কারন আমরা আমাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারিনি।

এদিকে যেসব কেন্দ্র গুলোতে ভোটারদের তেমন একটা উপস্থিতি হয়নি, সেসব কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা প্রতিনিধিগন জানান, প্রচন্ড গরম পড়ার কারনে হয়তো মানুষজন ভোট কেন্দ্রে আসতে চাননা। তবে এখনো অনেকে ফাঁকে ফাঁকে কেন্দ্রে এসে তাদের ভোট দিয়ে যাচ্ছেন।

বাংরাপত্রিকা/এনপি

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন