গাজীপুরে প্রবাসীর স্ত্রীসহ ৩ সন্তানকে হত্যার যে বর্ণনা দিল পারভেজ

আবুল খায়ের সোহাগ, গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২৮ এপ্রিল ২০২০ | ১১:৪৭:০৯ এএম
গাজীপুরে প্রবাসীর স্ত্রীসহ ৩ সন্তানকে হত্যার যে বর্ণনা দিল পারভেজ
গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার ফোর মার্ডার মামলায় পারভেজ গাজীপুর জেলা আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ শরীফুলের কাছে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে বলে জানান আদালতের ইন্সপেক্টর মীর রকিবুল ইসলাম।

সংশ্লিষ্ট সূত্রের তথ্য মতে, মালয়েশিয়া প্রবাসী রেজোয়ান হোসেন কাজল ও হত্যার মাস্টার মাইন্ড কাজিম উদ্দিনের বাড়ি শ্রীপুরের জৈনাবাজার এলাকার আবদার গ্রামের আব্দুল আউয়াল কলেজের পাশে। কাজলের বিদেশে থাকার সুবাদে বিভিন্ন প্রয়োজনে তার স্ত্রী-সন্তানদের সঙ্গে যোগাযোগ ছিল কাজিম ও তার দুই ছেলে পারভেজ ও সজীবের। নিয়মিত তারা বাড়িতে যাতায়াতও করতেন। কাজিমের স্ত্রী বিদেশে থাকেন। অনেকবার কাজলের দুই মেয়েকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেছেন পারভেজ।

গত ২২ এপ্রিল দিনের কোনও এক সময় কাজিম উদ্দিনের বাড়িতে বসে প্রবাসী কাজলের বাড়িতে চুরির পরিকল্পনা করে পুরো পরিবারটি। আগেও কাজলের বাড়িতে কাজিম উদ্দিনের ছেলে পারভেজ চুরি করেছেন। পরে ধরা পড়ার পর বিচার-সালিশও করেছেন স্থানীয় মাতব্বররা।

পরিকল্পনা অনুযায়ী ২২ এপ্রিল মধ্যরাতে দুতলা ভবনে ছাদের কাপড় শুকানোর রশ্মি ব্লেড দিয়ে কেটে বেয়ে উঠে বাথরুমের ভেন্টিলেটর দিয়ে উপরের তলায় প্রবেশ করেন। ফাতেমার ঘরের দরজা খোলার চেষ্টা করে শব্দ হওয়ায় ফাতেমা টের পেয়ে দরজা খুলে পারভেজকে দেখতে পেয়ে চিকিৎকার দেওয়ায় দা বটি দিয়ে কোপ দিয়ে ফেলে দেয়। টের পেয়ে বড় মেয়ে নূরা মায়ের ঘরে আসলে মাথায় আঘাত করে ফেলে দেয়। ছোট মেয়ে হাওয়ারীন আসলেও তাকে কোপ দিয়ে ফেলে দেয় এবং তিন জনকেই ধর্ষণ করে। ছোট প্রতিবন্ধী ছেলে ফাদিল সহ তিন জনকেই জবাই করে মৃত্যু নিশ্চিত করে। আধা ঘন্টায় মিশন শেষ করে নিজ বাড়িতে চলে যায়। আলমিরার চাবি নিয়ে টাকা পয়সা, ফাতেমার গলার চেইন, কানের দূল, নুরা ও হাওয়ারীনের গলার চেইন, আংটি ও দুইটি টাচ মোবাইল নিয়ে যায়।

হত্যা, ধর্ষণ ও চুরিতে কাজিম উদ্দিনের মেয়ের জামাইসহ পুরো পরিবার জড়িত। লুট করে নেয়া নগদ অর্থ, সোনা-গয়না ভাগভাটোয়ারার পর কাজিমের মেয়ে স্থানীয় একটি জুয়েলারি দোকানে সোনার আংটি গলিয়ে নতুন করে তৈরির জন্য অর্ডার দিয়েছিলেন।

এদিকে, রোববার (২৬ এপ্রিল) দিবাগত রাতে শ্রীপুর উপজেলার জৈনাবাজারের আবদার গ্রাম থেকে কাজিম উদ্দিনের ছেলে পারভেজকে (২০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

ঘাতক পারভেজ ২০১৮ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি নীলিমা নামে সাত বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের পর মাথায় আঘাত ও শ্বাসরোধে হত্যা করেছিলেন। এ ঘটনায় পারভেজের বিরুদ্ধে শিশুটির বাবা মামলা দায়ের করেন। পরে বয়স বিবেচনায় হাইকোর্ট থেকে জামিন পেয়ে মুক্ত হয়ে একই পরিবারের চারজনকে হত্যা করলেন পারভেজ।

বাংলাপত্রিকা/এনএন

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন