মিরসরাইয়ে বিনা ভোটেই বিজয়ী হচ্ছেন ১৪ চেয়ারম্যান : ভোট হবে যে দুটিতে

মিরসরাই প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১ | ০৬:৩৭:৪৩ পিএম
মিরসরাইয়ে বিনা ভোটেই বিজয়ী হচ্ছেন ১৪ চেয়ারম্যান : ভোট হবে যে দুটিতে চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে ১৬ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হচ্ছেন ১৪ চেয়ারম্যান প্রার্থী। ২৬ অক্টোবর প্রার্থীদের মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন এমন তথ্য জানায় উপজেলা নির্বাচন কর্তৃপক্ষ।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, যাচাই বাচাই শেষে মনোনয়ন প্রত্যাহারের জন্য বেধে দেয়া সময়ে ৪ টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীরা মনোনয়ন প্রত্যাহার করেন। ফলে হিঙ্গুলী ইউনিয়নে সোনা মিয়া, দূর্ঘাপুর ইউনিয়নে আবু সুফিয়ান বিপ্লব, ওয়াহেদপুর ইউনিয়নে ফজলুল কবির ফিরোজ এবং মিঠানালায় আবুল কাশেম বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হচ্ছেন। প্রত্যাহারের শেষ মুহুতে মনোনময়ন মনোনয়ন প্রত্যাহার করেন মিঠানালা ইউনিয়নে জাতীয় পার্টি মনোনীত নুর হোসেন। এছাড়া জোরারগঞ্জ ইউনিয়নে মনোনয়ন বাতিল হওয়া নিজাম উদ্দিন অপিল না করায় ওই ইউনিয়নে রেজাউল করিম মাস্টার বিজয়ী হচ্ছেন।

এর আগে চেয়ারম্যান পদে একক প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দেয়া- করেরহাট ইউনিয়নে এনায়েত হোসেন নয়ন, ধুম ইউনিয়নে একেএম জাহাঙ্গির ভূঁইয়া, ওচমানপুর ইউনিয়নে মফিজুল হক, ইছাখালী ইউনিয়নে নুরুল মোস্তফা, কাটাছড়া ইউনিয়নে রেজাউল করিম চৌধুরী হুমায়ুন, মঘাদিয়া ইউনিয়নে জাহাঙ্গির হোসেন মাস্টার, মায়ানী ইউনিয়নে মাস্টার কবির নিজামী, হাইতকান্দি ইউনিয়নে জাহাঙ্গির কবির চৌধুরী, সাহেরখালী ইউনিয়নে কামরুল হায়দার চৌধুরীর মনোনয়ন বৈধ ঘোষনা করা হয়েছে।

এদিকে উপজেলার বাকি দুই ইউনিয়নের- মিরসরাই সদর ইউপিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত শামসুল আলম দিদারের বিপরীতে বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক সাইফুল্লাহ দিদার এবং খৈইয়াছড়া ইউনিয়নে আ.লীগ মনোনীত মাহফুজুল হক জুনু'র বিপরীতে বিদ্রোহী প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান জাহেদ ইকবাল চৌধুরী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

আরও পড়ুন: মিরসরাইয়ে ১৬ ইউপির ১৩ টিতে নেই প্রতিদ্বন্দ্বি : ভোট হবে মাত্র ৩টিতে

মিরসরাই উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফারুক হোসেন জানান, উপজেলার ১৬ ইউনিয়নের ১৩ টিতে প্রতিদ্বন্দ্বি না থাকায় চেয়ারম্যান পদে ভোট গ্রহন হবেনা। এসব ইউনিয়নে শুধুমাত্র সাধারন সদস্য ও সংরক্ষিত সাধারন সদস্য পদে ভোট গ্রহন হবে। বাকি দুই ইউনিয়নে সকল পদে ভোটগ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। তবে সাধারন সদস্য ও সংরক্ষিত সদস্য পদেও বিভিন্ন ইউনিয়নের বেশ কিছু ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বি না থাকায় সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড সদস্যরাও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হবেন।

প্রসঙ্গত, ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী দ্বিতীয় ধাপে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে ২৭ অক্টোবর প্রতীক বরাদ্দ শেষে আগামী ১১ নভেম্বর ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।
 
মো. রিগান উদ্দিন/এনএ/দৈনিক বাংলাপত্রিকা

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন