সৌদিতে ভিসার টাকার লেনদেন: সখিপুরে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে উল্টো মামলা

সখিপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১ | ০৬:২১:৩৯ পিএম
সৌদিতে ভিসার টাকার লেনদেন: সখিপুরে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে উল্টো মামলা সৌদি আরবের দাম্মামে ভারতের এক বন্ধুর মাধ্যমে ভিসার টাকা লেনদেন হয়। লেনদেনে ভিসার টাকা বাকীও থাকে। দেশে আসার পর পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে উল্টো মামলার শিকার হয়েছে ভুক্তভোগী।

টাঙ্গাইলের সখিপুর উপজেলার কালিয়ান গ্রামের শামছুল আলমের ছেলে আমিনুলের সাথে এই ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে,সখিপুর উপজেলার কালিয়ান গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে ফেরদৌস মিয়ার সাথে একই গ্রামের শামছুল আলমের ছেলে আমিনুলের সাথে সৌদির দাম্মামে ভারতের এক লোকের মাধ্যমে ভিসার টাকার লেনদেন হয়। লেনদেনের এক পর্যায় আমিনুল ফেরদৌসের নিকট ৬লাখ টাকা পাওনা হয়। শেষে ফেরদৌস ক্ষমা চেয়ে আমিনুলকে ২লাখ টাকা দিবে বলে ওয়াদা করে। দেশে আসার পর আমিনুল তার পাওনা দুই লাখ টাকা ফেরদৌসের নিকট বার বার চাওয়ার পরও সে দেই দিচ্ছি বলে কালক্ষেপন করতে থাকে। এক সময় ফেরদৌস তার বোন জামাই নুরুল ইসলামকে বাদী করে উল্টো আমিনুলের নিকট টাকা দাবি করে টাঙ্গাইল ডিবিতে অভিযোগ দাখিল করে। আমিনুল যে ফেরদৌসের নিকট দুই লাখ টাকা পায় তা নিশ্চিত করেছেন ওই সময় সৌদি দাম্মামে থাকা রাজিব মিয়া ও শাহআলম মিয়া।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী আমিনুল ইসলাম বলেন, ফেরদৌসের নিকট পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে উল্টো মামলা করে আমাকে হয়রানি করা হচ্ছে। যা টাঙ্গাইল ডিবি’র এএসআই মো.সুলতান আলী শেক অবগত আছেন।

মো.শরীফুল ইসলাম/এনএ/দৈনিক বাংলাপত্রিকা

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন