নওগাঁয় দুইমাস যাবত প্রভাবশালীর দখলে ৩টি পরিবারের চলাচলের রাস্তা

কামাল উদ্দিন টগর | বাংলা পত্রিকা স্পেশাল
প্রকাশিত: শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১ | ০৪:২৩:৫৭ পিএম
নওগাঁয় দুইমাস যাবত প্রভাবশালীর দখলে ৩টি পরিবারের চলাচলের রাস্তা নওগাঁর তিলেকপুর ইউনিয়নের নারায়নপুর গ্রামে প্রায় দুইমাস যাবত ৩টি পরিবারের চলাচলের রাস্তার উপর ইটের ওয়াল গেড়ে ও এলাকার মাঠের পানি চলাচলের এক মাত্র কালভার্ট বন্ধ করে দিয়েছে প্রভাবশালী আব্দুল মজিদ ও তার পরিবারের লোকজন। এতে চরম দূর্ভোগে পড়েছে ওই এলাকার হাজার হাজার নিরোহ মানুষ।

চলাচলের একমাত্র রাস্তা হওয়ায় বাড়িতে যেতে পারছেন না তিনটি অসহায় পরিবার। রাস্তা বন্ধ থাকায় এলাকার মানুষ ঘরে ফসল তুলতে পারছে না বলে অভিযোগ ওই প্রভাবশালীর আব্দুল  মজিদের বিরুদ্ধে। এনিয়ে যে কোনো মুহুর্তে গ্রামবাসি ও আব্দুল মজিদ এর মধ্যে বড় ধরনের সংর্ঘষ ঘটতে পারে বলে মনে করছেন সচেতন মহল। বিষয়টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রেজাউল করিম এর নিকট হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভোক্তভোগীরা।

সরজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, উপজেলার তিলেকপুর ইউনিয়নের নারায়নপুর গ্রামের আলতাফ ফকির এর ছেলে নওগাঁ জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি আব্দুল মজিদ ও তার চাচা শহিদুল ইসলাম আসলাম প্রায় দুইমাস ধরে নারায়নপুর স্কুল সংলগ্ন থেকে লুৎফর রহমনের বাড়ী পর্যন্ত রাস্তা ইটের ওয়াল দিয়ে ঘেরাও করে বন্ধ করে দিয়েছে। এতে ওই রাস্তা দিয়ে শতাধিক পরিবার লোকজন যাতাযাতের চরম ভোগান্তিতে পড়েছে স্কুল কলেজগামী শিক্ষাথীসহ হাজার হাজার মানুষ।

তবে তাদেরকে এক থেকে দুই কিলো মিটার রাস্তা ঘুরে যাতাযাত করতে হচ্ছে। এলাকাবাসী বলছে, আব্দুল মজিদ রাস্তার ওপর ইটের ওয়াল গেড়ে বন্ধ করে দিয়েছে। ফলে ওই এলাকার পরিবার সহ রাস্তা দিয়ে চলাচলের লোকজনের স্কুল মাদরাসার পড়ুয়া কোমলমতি শিক্ষার্থীরা কাঁদামাটি অতিক্রম করে যাতাযাত করছে। বিষয়টি স্থানীয় ইউপি সদস্যসহ এলাকার লোকজনকে তাদেরকে অবহিত করলেও কোন সুরাহা হয়নি।

এই বিষয়ে একই গ্রামের পারুল আক্তার বলেন, নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে নওগাঁ জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি হওয়াই আব্দুল মজিদ ইটের ওয়াল নির্মাণ করায় অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছি আমি ও টিটু, আবদুল হাকিম আমজাদ, হারুন, আজাদ বাবু, জিললুর, মাহবুল পরিবারের সদস্যরা। সহ নারায়নপুর স্কুল মসজিদে আসার জন্য উলিপুর গ্রামের ছেলে মেয়ে। রাস্তা দখল করে বাড়িতে প্রবেশের পথ আটকে ইটের ওয়াল নির্মাণ করায় যাতায়াত বন্ধ হয়ে গেছে। আমারা গ্রামের মানুষ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েও কোনো ফল পায়নি।

নওগাঁ জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি আবদুল মজিদ এর সাথে ০১৭১৬০২২৯-- এই নাম্বারে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ব্যাস্ত আছেন বলে ফোন রেখে দেন।

তিলেকপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সভাপতি ডি এম তোতা জানান, এই বিষয়ে মৌখিক অভিযোগ পেয়ে আব্দুল মজিদের সাথে কথা বলেছি। বসার দিন ঠিক করলেও আব্দুল মজিদ আসেনি তাই এর কোন সুরোহা হয়নি।

এই বিষয়ে তিলেকপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মির্জা ইমাম উদ্দিন বলেন, এই বিষয়ে কোন লিখিত অভিয়োগ এখনো কেউ করেনি। লিখিত অভিয়োগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এনপি/দৈনিক বাংলাপত্রিকা

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন