ময়মনসিংহে হোল্ডিং ট্যাক্স বৃদ্ধির প্রতিবাদে মহানগর বিএনপি স্মারক লিপি প্রদান

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১ | ০৮:০৫:৫৮ পিএম
ময়মনসিংহে হোল্ডিং ট্যাক্স বৃদ্ধির প্রতিবাদে মহানগর বিএনপি স্মারক লিপি প্রদান
ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন হোল্ডিং ট্যাক্স বৃদ্ধির প্রতিবাদে ময়মনসিংহ মহানগর বিএনপি সিটি মেয়র বরাবর স্মারক লিপি প্রদান করেন।

মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় ময়মনসিংহ মহানগর বিএনপির আহবায়ক অধ্যাপক একেএম শফিকুল ইসলাম ও যুগ্ম আহবায়ক অধ্যাপক শেখ আমজাদ আলী সাক্ষরিত মেয়র বরাবর স্মারক লিপিটি  মহানগর  বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন (উপ সচিব) এর কাছে প্রদান করেন।

স্মারক লিপিতে বলা হয়,সাম্প্রতি ময়মনসিংহ পৌরসভা থেকে সিটি কর্পোরেশনে আমরা উন্নীত হয়েছি। সিটি কর্পোরেশনের নাগরিকদের নূন্যতম নাগরিক সুবিধা বৃদ্ধি না করেই হঠাৎ অস্বাভাবিক হারে হোল্ডিং ট্যাক্স বৃদ্ধি করায় সিটি কর্পোরেশনের সকল নাগরিকবৃন্ধ উদ্বিগ্ন। বর্তমানে সারা বিশ্বের করোনা মহামরির কারনে আপনার সিটি কর্পোরেশনের নাগরিক সহ আজ সারা বিশ্ব চরম অর্থনৈতিক সংকটে উপনীত এমতাবস্থায় সিটি কর্পোরেশনের নাগরিকদের উপর ধার্য্যকৃত হোল্ডিংটেক্স কতটুকু যুক্তিযুক্ত তা আপনার বিবেকের কাছে প্রশ্ন।

ময়মনসিংহ মহানগর বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক অধ্যাপক শেখ আমজাদ আলীর নেতৃত্বে যুগ্ম আহবায়ক কাজী রানা, শাহ শিব্বীর আহমেদ ভুলু, ফারজানা রহমান হোসনা, এড. এম এ হান্নান খান, কায়কোবাদ মামুন, শামীম আজাদ ও মাহবুবুল আলম মাহবুব সহ একটি প্রতিনিধি দল সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন (উপ সচিব) এর কাছে স্বারক লিপি প্রদান করেন।

মহানগর বিএনপি'র হোল্ডিং টেক্সের প্রতিবাদ এ স্মারক লিপিতে দাবি জানানো হয়, ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন কতৃক নাগরিক সুবিধা বৃদ্ধি না করেই অস্বাভাবিক হারে হোল্ডিং টেক্সবৃদ্ধি করা হয় যা সহনীয় পর্যায়ে নিয়ে আসার দাবি জানানো হয়।

দীর্ঘ করোনাকালীন সময়ে নাগরিকগন যখন চরম আর্থিক সংকটে নিম্মজিত তখন এই ধরনের সিদ্ধান্ত অনাকাঙ্ক্ষিত ও অনতিপ্রেয়।

আপত্তি ফরমের মূল্য সহনীয় পর্যায়ে নিয়ে আসা এবং গ্রাহককে মূল্য প্রাপ্তি রশিদ প্রদানের দাবি জানানো হয়।

উপরোক্ত বিষয়ে নাগরিক বৃন্ধের উদ্ধেগ ও উৎকণ্ঠতা থেকে পরিত্রনের জন্য প্রয়োজনীয় দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহন করার দাবী জানানো হয়।

স্বারক লিপি পাঠ করেন যুগ্ম আহবায়ক কাজী রানা। এসময় প্যানেল মেয়র আসিফ হোসেন ডন, সৈয়দ শফিকুল ইসলাম মিন্টু ও কমিশনার এমদাদুল হক উপস্থিত ছিলেন। প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ট্যাক্স বিষয়ে একটি প্রদর্শনীর মাধ্যমে আমাদেরকে অবহিত করেন এবং নাগরিক বৃন্দের উপর আরোহিত ট্যাক্স সহনীয় পর্যায়ে নিয়ে আসার আশ্বাস প্রদান করেন।

মো:জাকির হোসেন/এসএ/বাংলাপত্রিকা

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন