এক নারীকে ৩ পুলিশ অস্ত্র ঠেকিয়ে ৩ লাখ টাকা ছিনতাই

বিশেষ প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ২ মার্চ ২০২১ | ০৬:৪৯:৫১ পিএম
এক নারীকে ৩ পুলিশ অস্ত্র ঠেকিয়ে ৩ লাখ টাকা ছিনতাই
কক্সবাজারে এক নারীর ঘরে প্রবেশ করে ৩ পুলিশ সদস্য অস্ত্র ঠেকিয়ে ৩ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে সদর মডেল থানা পুলিশ।

সোমবার বিকাল ৪ টার দিকে কক্সবাজার শহরের মধ্যম কুতুবদিয়া পাড়া এলাকার রোজিনা খাতুন নামের এক মহিলার বাড়িতে ঢুকে সদর মডেল থানার সাদা পোশাকধারী ৩ পুলিশ সদস্য মহিলাকে মারধর করে তিন লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয় বলে জানান মহিলার স্বামী রিয়াজ আহমেদ।

আটক পুলিশ সদস্যরা হলেন, সদর মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নুর হুদা ছিদ্দিকী এবং কনস্টেবল আমিনুল মমিন ও মামুন মোল্লা। তাদের মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।জেলা পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

রোজিনা খাতুনের স্বামী রিয়াজ আহমেদ জানান, ‘কক্সবাজারের খুরুশকুল আশ্রয়ন প্রকল্পে একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনার জন্য আমার স্ত্রী আত্মীয়স্বজনদের কাছ থেকে টাকা জোগাড় করে নিয়ে আসে। আমার অনুপস্থিতিতে সোমবার বিকেলে অটোরিকশায় করে সাদা পোশাকে তিনজন বাসায় ঢুকে আমার স্ত্রী রোজিনাকে মারধর করে পিস্তল ঠেকিয়ে তিন লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয়।’

রোজিনা জানান, ওই ব্যক্তিরা তাকে ইয়াবা ব্যবসায়ী বলে আখ্যা দেয় ও তার দিকে অস্ত্র তাক করে। এরপর তার কাছ থেকে তিন লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয়া হয়। এব্যপারে রোজিনা বাদী হয়ে তিন পুলিশের বিরুদ্ধে সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

তিনি বলেন, ‘আমার চিৎকারে আশপাশের লোকজন সেখানে জড়ো হতে থাকলে তারা পালিয়ে যায়। একজনকে স্থানীয়রা তখন আটক করে ৯৯৯ এ ফোন করে পুলিশকে ঘটনা জানায়। পুলিশ সেখানে গিয়ে আটক ব্যক্তিকে থানায় নেয়।’

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-অপারেশন) মোহাম্মদ সেলিম জানান, সোমবার রাতে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্য দুই পুলিশ সদস্যকেও আটক করা হয়। পরে মঙ্গলবার সকালে রোজিনার করা মামলায় তিনজনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

এ বিষয়ে কক্সবাজার জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘সংশ্লিষ্ট সবার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। অপরাধী যেই হোক না কেন সবাই আইনে আওতায় আনা হবে।

তবে মধ্যম কুতুবদিয়া পাড়ার রোজিনা খাতুন একজন স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সচেতন মহল। দীর্ঘদিন ধরে রোজিনা এই এলাকায় মাদকের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে বলে সূত্রে জানা গেছে। এই রোজিনার ব্যপারে বিভিন্ন সময় কক্সবাজারের স্থানীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছিল বলে জানা যায়।

মো. শহীদুল্লাহ/এনপি/বাংলাপত্রিকা

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন