মহেশপুরে ভোট বর্জন, কালীগঞ্জে এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ০৬:২৭:০৩ পিএম
মহেশপুরে ভোট বর্জন, কালীগঞ্জে এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ
ভোট বর্জন, কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের বের করে দেওয়া ও প্রসাশনের সহযোগীতায় জোর করে ভোট নেওয়াসহ নানা অভিযোগের মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে ঝিনাইদহের মহেশপুর ও কালীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন।

রোববার সকাল থেকে কেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতি কম ছিল। পঞ্চম ধাপে অনুষ্ঠিত এ পৌরসভা দু’টির ভোট গ্রহন করা হয় ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনে।

সকাল ১০টার দিকে কালীগঞ্জ পৌরসভার কাশিপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে বেদে সম্প্রদায়ের দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এসময় ইসলাম নামে এক যুবক আহত হয়। সংবাদ পেয়ে পুলিশ বিজিবি ও র‌্যাব সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌছে ব্যপক লাঠিচার্জ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এদিকে কালীগঞ্জ পৌরসভার ধানের শীষ প্রতিকের ময়ের পার্থী আলহাজ্ব মাহবুবার রহমান অভিযোগ করেন, তার এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। সমর্থকদের কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না।

আইন শৃঙ্খলা রক্ষার্থে কালীগঞ্জে ২১০ জন পুলিশ, ১৯৮ জন আনসার ও ৩ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়। মোট ভোটার রয়েছে ৪০৫৭৭ জন। নয়টি ওয়ার্ড ও ২১টি কেন্দ্রে। এখানে মেয়র পদে চারজন প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। এদের মধ্যে আওয়ালীগের দলীয় প্রার্থী নৌকার প্রতিকের আশরাফুল আলম আশরাফ, বিএনপি থেকে ধানের শীষের প্রার্থী মাহবুবার রহমান, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের হাতপাখার নুরুল ইসলাম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী নারিকেল গাছ প্রতিকের এনামুল হক ইমান।

অন্যদিকে জেলার মহেশপুর পৌরসভায় কেন্দ্র থেকে এজেন্টদের বের করে দেওয়া ও প্রসাশনের সহযোগীতায় জোর করে ভোট নেওয়াসহ নানা অভিযোগে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন বিনএপি মনোনিত ধানের শীষ প্রতিকের মেয়র প্রার্থী আমিরুল ইসলাম খাঁন চুন্নু। দুপুরর ২টার দিকে তিনি শহরের বিএনপি নেতা মোহাম্মদ আলীর বাড়ির সামনে থেকে সাংবাদিকদের মাধ্যমে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন। মহেশপুর পৌর এলাকার কিছু কেন্দ্রে ধানের শীষের ভোটারদের আঙ্গুলের ছাপ নেওয়ার পর জোর করে ভোট দিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

১৮৬৯ সালে প্রতিষ্ঠিত দেশের প্রাচীনতম এ পৌরসভায় চারজন মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দিতা করেন। এরা হলেন আওয়ামীলীগ দলীয় প্রার্থী বর্তমান মেয়র আব্দুর রশিদ খাঁন, বিনএপি মনোনিত ধানের শীষ প্রতিকের আমিরুল ইসলাম খাঁন চুন্নু, হাতপাখা প্রতিক নিয়ে ইসলামী আন্দোলনের তাহাবুর রহমান খান এবং নারিকেল গাছ প্রতিক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী সাংবাদিক গোলাম মোস্তফা কিরণ। মোট ভোটার ২৪৪৫৩ জন। নয়টি ওয়ার্ড ও ১১টি কেন্দ্র। এখানে আইন শৃঙ্খলা বজায় রাখতে ১৭৫ জন পুলিশ, ৯৯ জন আনসার ও ২ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়।

এছাড়া সকালে একটি বেসরকারি টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধির মোবাইল কেড়ে নিয়ে অসৌজন্যমূলক আচরণ করার অভিযোগ উঠেছে মহেশপুর ৫৮ বিজিরি সিও কামরুল আহসানের বিরুদ্ধে।

ফিরোজ আহম্মেদ/এনপি/বাংলাপত্রিকা

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন