আল মাহমুদ কায়েস’র গদ্য কবিতা ‘জমে থাকা এপিটাফ’

আল মাহমুদ কায়েস | পাঠক কলাম
প্রকাশিত: রবিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২১ | ১১:৫৫:১৫ পিএম
আল মাহমুদ কায়েস’র গদ্য কবিতা ‘জমে থাকা এপিটাফ’
গদ্য কবিতা ‘জমে থাকা এপিটাফ’
-আল মাহমুদ কায়েস


মনের গহীন কোণে জমে থাকে এপিটাফ। যা দাগ রেখে যায় মগজে। শত বারণ সত্ত্বেও মনে ছুটে চলে অতীতের পথে স্মৃতি রোমন্থনে।

স্টেশনে ট্রেনের অপেক্ষায় ছোট্ট কফি শপটার বেঞ্চে বসে আয়েসি ভঙ্গিতে কফি কাপে চুমুক দিতেই তোমার অবয়ব আবিষ্কার করলাম। তুমিও যেনো ঠিক স্টেশনে দাঁড়িয়ে আছো, স্টেশনের প্লাটফর্মে।

আমি একটু এগিয়ে তোমার সামনে দাঁড়িয়ে বললাম, 'কেমন আছো? ভালো আছো তো?'

তুমি হতভম্ব হয়ে বললে, 'ভাল আছি, তুমি কেমন?'

আমি বললাম, 'ভালো।
আচ্ছা, চল বসি, তুমি কি কফি খাবে? চল, কফি খেতে খেতে কথা বলি।

না, আমি কফি খাবো না।

আচ্ছা তোমায় একটা কথা জিজ্ঞেস করার ছিল, বলবে কি আমায়? না, আগের মত এরিয়ে যাবে? একটা প্রশ্ন দীর্ঘদিন ধরে মনের ভিতর ঘোরপাক খাচ্ছে, তোমায় জিজ্ঞেস করবো বলে। আজ তোমার সাথে দেখা হওয়ায় খুব জানতে ইচ্ছে করছে। তুমি কি বলবে আমায়..?

কি এমন কথা, আচ্ছা বলো!

আমার বিশ্বাস সেদিন তুমি আমাকে ছেড়ে চলে গিয়েছিলে তার কারণ সেদিন আমি পরিপূর্ণ ছিলাম না। যে তুমি আমাকে পাগলের মত ভালোবাসতে, যার সবটা জুড়ে শুধু ছিলাম আমি, তোমার ভালোবাসাতেই তো আমি খুঁজে পেতে চেয়েছিলাম পূর্ণতার ছাপ। সেই তুমি আমার বেকারত্বের জন্য আমাকে ছেড়ে চলে যাবে, আমার ভালোবাসা কি এতোটাই ঠুনকো ছিলো? এটা আমার জীবনে সবচেয়ে বড় অমীমাংসিত প্রশ্ন?
আমার একটা অনুরোধ রাখবে?
 
যদি তুমি প্রস্থান করবে তবে কেন স্বপ্নলোকে রঙ্গিন ভেলা ভাসালে?
জীবনে সব কিছুর উত্তর কখনো জানতে নেই? তুমি আজও আমাকে এত ভালোবাস?
কিছু অপূর্ণতায় ভালোবাসার সুখ বিদ্যমান।

তুমি আজও প্রশ্ন এড়িয়ে যাচ্ছো?

জীবনের অপূর্ণতাতেই ভালোবাসা সবচেয়ে গভীর।

শরৎচন্দ্র বলেছিলেন,
"বড় প্রেম শুধুই কাছেই থাকে না বরং দূরেও ঠেলে দেয়।"

মানুষকে সবসময় পাশে পেলেই ভালোবাসা কিন্তু হয়না.....

একাকীত্ব সময়ে কারো স্মৃতি বয়ে বেড়ানোও  ভালোবাসা, আমাদের চলার পথ আলাদা হলেও একটা সময় সুখের অনেকটা পথ হেঁটেছি একসাথে। আজ অনেকদিন পর দেখা হলো এ পথে, এই বিস্তৃর্ণ পথে, হয়তো আবার হারিয়ে যাবো, কিন্তু তোমার স্মৃতি নিয়ে বেঁচে থাকবো সারাজীবন!

তাইতো জীবনানন্দ বলেছিলেন,
“তবু তোমাকে ভালোবেসে
মুহূর্তের মধ্যে ফিরে এসে
বুঝেছি অকূলে জেগে রয়
ঘড়ির সময়ে আর মহাকালে যেখানেই রাখি এ হৃদয়।”

আমি তোমায় এখনো অনেক ভালোবাসি।
তোমার ভাল থাকা,
তোমার ব্যক্ত-অব্যক্ত ভালোবাসা
আমার অনুভূতিতে বিচরণ করে।  

আচ্ছা, আমায় কি তোমার মনে পড়বে ঠিক আগের মতো?
এ যেন জীবনের সবচেয়ে কঠিন প্রশ্ন করেছি আমি,
কিন্তু আমার ভিতরে জমে থাকা হাজার হাজার  অমিমাংসীত প্রশ্নের উত্তর আমি আজো খু্ঁজে বেড়াচ্ছি।

অবিরত ক্লান্ত পথিকের ন্যায় খুঁজে বেড়াচ্ছি...

তাই বুঝি বিষ্ণু দে বলেছিলেন, "তুমিই মালিনী, তুমিই তো ফুল জানি।
ফুল দিয়ে যাও হৃদয়ের দ্বারে, মালিনী,
বাতাসে গন্ধ, উৎস কি ফুলদানি,
নাকি সে তোমার হৃদয়সুরভি হাওয়া ?"

তবে এখন না তোমায় নিয়ে ভেবেই ভাবি না, তোমার কথা মনে পড়তেই পরক্ষণেই ভুলে যেতে পারি জানি কেন?

শুধু তোমার মায়ার জালে জড়িয়ে ছিলাম বলেই মনে ভেসে ওঠলো সেই পুরোনো সুখ-স্মৃতি গুলো।

আচ্ছা শুন তুমি বড্ড ভালো মনের মানুষ ছিলে, অবশেষে একটা কথায় বলবো,

তোমার ভালো মানুষের রুপটাও দরে রেখ, কারণ জীবনের আরো অনেকটা পথ পাড়ি দেবার বাকী।

ভালো থেকো সবসময় "প্রিয়"


আল মাহমুদ কায়েস
বাংলা ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ
জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন