গফরগাঁও পৌরসভার অসম্পূর্ণ কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে

গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: রবিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২১ | ০৭:৩৭:২৩ পিএম
গফরগাঁও পৌরসভার অসম্পূর্ণ কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে
দ্বিতীয় বারের মতো আওয়ামীলীগের প্রার্থী নৌকা প্রতীকে মেয়র নির্বাচিত হন এস এম ইকবাল হোসেন সুমন। নির্বাচিত হয়েই পৌর মেয়র অসম্পূর্ণ কাজ সম্পন্ন করার পাশাপাশি যানজট মুক্ত পৌরসভা গঠনের উদ্যোগ নিয়েছেন।  

শনিবার সকালে পৌর শহর ঘুরে দেখা যায় টিচার্স রোডে, শামসুল হুদা পাঁচবাগী রোডে,চাঁদনীর মোড়ে, মুখী রোডে উন্নয়ন কাজ চলমান। টিচার্স রোডের দুই পাশের স্হাপনা অপসারণ করা হচ্ছে। রাস্তাটি প্রসস্থ করাসহ ড্রেন নির্মান করা হবে। শিবগঞ্জ রেলক্রসিং থেকে বাজারের চার রাস্তার মোড় হয়ে চাঁদনীর মোড় দিয়ে সোহরাব মার্কেট সংলগ্ন ব্রিজ দিয়ে নদীতে ড্রেন সংযোগ কাজ দ্রুতগতিতে চলছে। ইতিমধ্যে জামতলা মোড় থেকে পোস্ট অফিসের ব্রিজ হয়ে নদীতে ড্রেন সংযোগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এর আগে গরুহাটা মোড় থেকে মধ্য বাজার হয়ে আব্দুল বেপারী গেইট পর্যন্ত ড্রেন নির্মান কাজ সম্পন্ন হয়েছে। দীর্ঘ মেয়াদি পরিকল্পনা নিয়ে জন স্বাস্থ্য প্রকৌশলের অধীনে গড়ে তোলা হচ্ছে ড্রেনেজ নেটওয়ার্ক।

শামসুল হুদা পাঁচবাগী রোডের গলিতে ৬০ মিটার ড্রেন নির্মান্ন সম্পন্ন হয়েছে। সিসি ডালাইয়ের কাজের অগ্রগতির খোঁজ নিয়ে জানা যায় শিবগঞ্জ রেলক্রসিং থেকে স্টেশন পর্যন্ত ও শামসুল হুদা পাঁচবাগী সড়কের ডালাই কাজ আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে শেষ হবে। মুখী রোডের ইউ ড্রেন ও ক্রস ড্রেনের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। অতি দ্রুতই এই রাস্তার কাজ সম্পন্ন হবে। শিবগঞ্জ রেলক্রসিং থেকে পুখুরিয়া রোড পর্যন্ত সিসি ডালাই কাজ সম্পন্ন হয়েছে। খান বাহাদুর ইসমাইল সড় থেকে বধ্যভূমি হয়ে বিশ্বরোড পর্যন্ত রাস্তার মেকাডম করা হয়।

এছাড়াও চামড়া গোদাম থেকে পৌরসভার শেষ সীমা পর্যন্ত রাস্তার মেকাডম করা হয়। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে কার্পেটিংয়ের কাজ শুরু হবে। এছাড়াও রাস্তা ও ড্রেনেজ ব্যবস্থা উন্নয়ন করার পাশাপাশি যানজট মুক্ত পৌরসভা গঠনের উদ্যোগ নিয়েছে। যত্রতত্র নছিমন, টমটম, ব্যাটারিচালিত ইজিবাইকের উৎপাতে অতিষ্ঠ ছিলো নাগরিকরা। পৌর এলাকায় যানজট লেগেই থাকতো। যানজট নিরসনে মালবাহী যান লোড ও আনলোড ব্যস্ত সময়ে না করার নির্দেশ দেয়া হয়। এছাড়াও ফুটপাত দখলদারদের উচ্ছেদ করা হয়। মালবাহী লড়ি বাজারে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করার দায়ে জরিমানা আদায় করা হয়।পুরাতন বাস স্ট্যান্ডে সিএনজি অটোরিকশা স্ট্যান্ড সরানো হয়।

টিচার্স রোডের বাসিন্দা কলেজ শাখা ছাত্র লীগ নেতা সাব্বিরের সাথে কথা বলে জানা যায়। উন্নয়ন কাজে সকলে সহায়তা করছে। রাস্তার দুই পাশের বাসা, বাড়ী ও গাছ স্ব প্রনোদিত হয়ে পৌর বাসিন্দারা ভেঙে দিচ্ছে।

সাংবাদিক আশরাফুল ইসলাম আপেল বলেন, অপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থার জন্য টিচার্স রোডে পানি জমে থাকতে দেখা যায়। এজন্য অনেক দূর্ভোগ পোহাতাম আমরা।কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি প্রিয় নেতা ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল এমপি  ও পৌর মেয়র এস এম ইকবাল হোসেন সুমন ভাইয়ের প্রতি। তাদের প্রচেষ্টার ফসল স্বরূপ কাজ শুরু হয় পরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা।

দ্বিতীয় বারের মতো নির্বাচিত কাউন্সিলর সোহরাব হোসেন ও মশিউর রহমান কিরনের সাথে কথা বলে জানা যায়, শতবর্ষ পরিকল্পনা নিয়ে পৌরসভার মেয়র এস এম ইকবাল হোসেন সুমন কাজ করে যাচ্ছে। ড্রেনেজ ব্যবস্থা উন্নয়ন করতে অসম্পূর্ণ কাজ সম্পন্ন করছেন তিনি প্রথমে।

পৌর মেয়র এস এম ইকবাল হোসেন সুমন বলেন, দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা নিয়ে পৌরসভার উন্নয়ন কাজ শুরু করেছি। পৌরবাসী বহু আশা নিয়ে আমকে পুনরায় মেয়র নির্বাচিত করে। অসম্পূর্ণ কাজ সম্পন্ন করার পাশাপাশি যানজট মুক্ত পৌরসভা গঠনের উদ্যোগ নিয়েছি। শপথ নেয়ার পর প্রিয় নেতা ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল এমপি মহোদয়ের পরামর্শক্রমে একের পর এক উন্নয়ন কাজ শুরু করবো।
 
মিথুন/বাংলাপত্রিকা/এসএ

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন