বিয়ের প্রলোভনে নিজ প্রতিষ্ঠানের নারী কর্মচারীকে ধর্ষণ; মালিক গ্রেপ্তার

গাজীপুর সদর প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১ | ০৯:২২:১৩ পিএম
বিয়ের প্রলোভনে নিজ প্রতিষ্ঠানের নারী কর্মচারীকে ধর্ষণ; মালিক গ্রেপ্তার
গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কোনাবাড়ীতে বিয়ের প্রলোভনে নিজ প্রতিষ্ঠানের নারী কর্মচারীকে ধর্ষণের অভিযোগে (রনু সুপার মার্কেটের মালিক) আওলাদ হোসেনকে (৪৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় তাকে কোনাবাড়ী থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আওলাদ হোসেন কোনাবাড়ী এলাকার মৃত রমজান আলীর ছেলে এবং রনু সুপার মার্কেটের মালিক।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, রনু সুপার মার্কেটে আওলাদ হোসেনের আরগন ফার্মাসিটিক্যাল লিমিটেড নামক একটি প্রতিষ্ঠান আছে। সে তার প্রতিষ্ঠান ও দোকান দেখা শোনার জন্য ২০১০ সালে এক নারী কর্মচারীকে নিয়োগ দেয়। নিয়োগের পর থেকেই তার কুনজর পরে ওই নারী কর্মচারীর উপর। বিভিন্ন ভাবে সে তাকে বিয়ের প্রস্তাব দিতে থাকে। ওই নারী কর্মচারী তার দেয়া বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে। এর পর থেকেই শুরু হয় লম্পট আওলাদের অভিনয়। বিভিন্ন ভাবে ফুসলিয়ে তাকে নিয়ে ঘুরতে যায়। তার এই দূর্বলতাকেই কাজে লাগিয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ করে। সর্বশেষ গত ২২ জানুয়ারি আনুমানিক বেলা সাড়ে ১১টা সময় রনু সুপার মার্কেটের চতুর্থ তলায় তার নিজ অফিসে নিয়ে আবারও ধর্ষণ করে আওলাদ হোসেন। বর্তমানে ওই নারী কর্মচারী ৯ সপ্তাহের অন্তঃসত্ত্বা। পরে ওই নারী আজ  কোনাবাড়ী জিএমপি থানায় এসে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (জিএমপি) কোনাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আবু সিদ্দিক জানান, থানায় একটি ধর্ষণ মামলার অভিযোগ হয়েছে।

ওই পুলিশ কর্মকর্তা আরও জানান, আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বর্তমানে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

মোঃ নাছির উদ্দিন/এনপি/বাংলাপত্রিকা

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন