চেয়ারম্যানের জমি দখলের পর বিএনপি নেতার ছেলের ভূরিভোজ!

নিজস্ব প্রতিবেদক | সারাদেশ
প্রকাশিত: শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০ | ১০:১৬:১১ পিএম
চেয়ারম্যানের জমি দখলের পর বিএনপি নেতার ছেলের ভূরিভোজ!
পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলায় স্থানীয় এক ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যানের লাগানো ছয়শতাধিক ফলের গাছ কেটে জমি দখলের পর আনন্দে ভূরিভোজ আয়োজনের অভিযোগ উঠেছে এক বিএনপি নেতার ছেলের বিরুদ্ধে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার পত্তাশী বাজার এলাকার তালুকদার বাড়িতে পাঁচশতাধিক লোকের অংশগ্রহণে এ ভূড়িভোজের আয়োজন করেন জেলা বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি প্রয়াত খোকন তালুকদারের ছেলে রানেল তালুকদার।

এর আগে বুধবার পত্তাশী বাজারের কাছে পত্তাশী ইউপির চেয়ারম্যান হাওলাদার মোয়াজ্জেম হোসেনের রোপন করা পেয়ারা, পেঁপে, আমড়া ও কলাগাছসহ বিভিন্ন প্রজাতির ছয়শতাধিক ফলের গাছ কেটে পাশের খালে ফেলে দেন রানেল তালুকদার। ইটালি প্রবাসী রানেল সম্প্রতি দেশে ফিরেছেন।

ইন্দুরকানী উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি মোয়াজ্জেম আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার দাবি, তিনি রানেলের চাচার কাছ থেকে ২১ শতাংশ জমি কিনে সেখানে বাণিজ্যিকভাবে ফলের চাষ করছিলেন। বুধবার ৪০-৫০ জন বহিরাগত লোক নিয়ে রানেল তালুকদার তার লাগানো ফলের গাছগুলো কেটে পাশের খালে ফেলে দেন এবং তারকাটা দিয়ে জায়গাটি ঘিরে রাখেন। তবে এ সময় স্থানীয় শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য মোয়াজ্জেম কোনো বিবাদে জড়াননি। এরপরই বৃহস্পতিবার রাতে নিজ বাড়িতে গরু জবাই করে পাঁচ শতাধিক লোকের ভূরিভোজের আয়োজন করেন রানেল তালুকদার।

এদিকে, দখলে নেওয়া ওই জমি নিজের পৈত্রিক সম্পত্তি বলে দাবি করেছেন রানেল তালুকদার। আর জায়গা দখলের পর ভূড়িভোজের বিষয়টি অস্বীকার করে তিনি বলেন, ‘আমরা এমনিই ভূরিভোজের আয়োজন করেছি। জায়গা দখলের জন্য ভূরিভোজের আয়োজন করি নাই।’

এ বিষয়ে ইন্দুরকানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হুমায়ুন কবির বলেন, ‘গাছ কাটার বিষয়ে কোনো অভিযোগ পাইনি। লিখিত অভিযোগ পেলে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। তবে ভূরিভোজের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়েছিল এবং পুলিশ যাওয়ার আগে তাদের ভূরিভোজ শেষ হয়।’

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন