ভৈরবে ধর্মীয় মর্যাদায় ও ভাবগাম্ভীর্যের সঙ্গে পালিত হয়েছে পবিত্র ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম

ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০ | ০৬:১৬:৩৪ পিএম
ভৈরবে ধর্মীয় মর্যাদায় ও ভাবগাম্ভীর্যের সঙ্গে পালিত হয়েছে পবিত্র ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম
কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব পৌর এলাকার লক্ষিপুরে ধর্মীয় মর্যাদায় ও ভাবগাম্ভীর্যের সঙ্গে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংক্ষিপ্ত ভাবে পালিত হয়েছে গাউসুল আযম বড় পীর হজরত আবদুল কাদের জিলানি (র.)-এর ওফাত দিবস পবিত্র ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম।

উক্ত ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম মাহফিলে আলহাজ্ব শামসুদ্দিন মুল্লা সাহেব এর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন ভৈরব পৌরসভার ৬নং লক্ষিপুরের ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলহাজ্ব মিন্টু মিয়া সহ স্থানিয় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ ও আলেম ওলামা গণ।

এতে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- হযরত সৈয়দ কুতুব উদ্দিন আহমদ আল-হোসাইনী চিশতী রহঃএর ছেলে বড় সাহেবজাদা, সৈয়দ ফাইয়াজ হাসান বাবু। তিনি বিশ্ববাসীর শান্তি কামনায় ও মহামারী করোনা ভাইরাস থেকে বিশ্ববাসীকে হেফাজত করার জন্য মহান আল্লাহর দরবারে মিলাদ ও দোয়া মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি করেন।

অনুষ্ঠানে হযরত সৈয়দ কুতুব উদ্দিন আহমদ আল-হোসাইনী চিশতী রহঃ এর লিখিত গাওসের পাঁকের শান পরিবেশন করে স্থানিয় হোসাইনী শিল্পী গুষ্টি।

এই পবিত্র ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম শরিফ ইমামুল আউলিয়া পীরানে পীর গাউসুল আযম দস্তগীর হজরত মুহিউদ্দিন আবদুল কাদের জিলানি আল হাসান ওয়াল হোসাইনী (র.)-এর স্মরণে পালিত হয়।

ই-ইয়াজদাহম ফারসি শব্দ, যার অর্থ এগারো।ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম’ বলতে রবিউস সানি মাসের এগারো-এর ফাতেহা শরিফকে বোঝায়।

সারা দেশের ন্যায় ভৈরবে বিভিন্ন স্থানে ধর্মপ্রাণ মুসলমান গণ এই দিনটি পালন করেন।

পলাশ আহমেদ, এসএ/বাংলাপত্রিকা             

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন