সেলফ আইসোলেশনে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

বাংলা পত্রিকা ডেস্ক | আন্তর্জাতিক
প্রকাশিত: সোমবার, ১৬ নভেম্বর ২০২০ | ১২:৫৭:৫৩ পিএম
সেলফ আইসোলেশনে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী
মহামারি করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে আবারও বিপর্যস্ত গোটা বিশ্ব। ব্রিটেনের অবস্থাও ফের ভয়াবহ আকার নিচ্ছে। বিবিসি তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, এমন অবস্থার মধ্যে ফের আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে।

প্রতিবেদনটিতে আরো বলা হয়, সম্প্রতি করোনায় সংক্রমিত এক সংসদ সদস্যের করোনা পজিটিভ আসে। তার আগেই ওই এমপির সংস্পর্শে এসেছিলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। এ কারণে দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য সংস্থা (এনএইচএস) তাকে সেলফ আইসোলেশনে থাকার পরামর্শ দিয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার অ্যাশফিল্ডের এমপি লি অ্যান্ডারসনের সঙ্গে ৩৫ মিনিট সময় কাটিয়েছিলেন জনসন। পরবর্তীতে লির দেহে করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে।

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক শেষে সংসদ সদস্য লি অ্যান্ডারসন ফেসবুকে একটি ছবি পোস্ট করেন। সেই ছবিতে দেখা যায় তাদের কারো মুখেই মাস্ক ছিল না।

এদিকে রোববার রাতে এক টুইট বার্তায় জনসন বলেন, ‘আজ রাতে আমি এনএইচএস টেস্ট করিয়েছি। সুতরাং আমাকে অবশ্যই সেলফ আইসোলেশনে থাকতে হবে। কারণ ইতোমধ্যেই আমি এমন একজনের সংস্পর্শে ছিলাম যার কোভিড-১৯ পজিটিভ ধরা পড়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমার দেহে করোনার কোনো লক্ষণ ধরা পড়েনি। তবে আমি সব ধরনের বিধি-নিষেধ অনুসরণ করছি। সরকারের মহামারি বিষয়ক সংস্থার প্রধান হিসেবে আমি এখনও দায়িত্ব পালন করে যাব।’

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী ভালো আছেন এবং তার কোভিড-১৯ এর কোনো লক্ষণ নেই। সেলফ আইসোলেশনে থাকাকালে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুসরণ করে ডাউনিং স্ট্রিট থেকে প্রধানমমন্ত্রী তার দাপ্তরিক কার্যক্রম চালিয়ে যাবেন।

প্রসঙ্গত, মগত এপ্রিলে করোনা সংক্রমিত হয়েছিলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। সে সসময় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন তিনি। সুস্থ হওয়ার পর বরিস জানিয়েছিলেন, চিকিৎসকদের একান্ত চেষ্টায় তিনি সুস্থ হয়েছেন। এমন অবস্থা হয়েছিল যে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণার জন্যও প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। তবে সে যাত্রায় বেঁচে যান তিনি।

বাংলাপত্রিকা/এসআর

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন