ঘরের দরজা ভেঙে অস্ত্রের মুখে কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেফতার ছাত্রলীগ নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদক | সারাদেশ
প্রকাশিত: রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০ | ১২:৪৬:১৩ পিএম
ঘরের দরজা ভেঙে অস্ত্রের মুখে কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেফতার ছাত্রলীগ নেতা
এবার নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় বসতঘরের দরজা ভেঙে অস্ত্রের মুখে কিশোরীকে (১৬) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে সুমন (৩২) নামে এক ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে।

শুক্রবার রাত ২টার দিকে উপজেলার চৌমুহনী পৌর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে শনিবার ধর্ষক সুমনকে আসামি করে বেগমগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। এর পরই সুমনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, গ্রেফতার সুমন পৌর যুবলীগের বিলুপ্ত কমিটির নির্বহী সদস্য ছিল ও মাদককারবারি। তিনি উপজেলার চৌমুহনী পৌর এলাকার বাসিন্দা।

বেগমগঞ্জ থানার ওসি কামরুজ্জামান শিকদার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, শনিবার গভীর রাতে ধর্ষক সুমনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।  তিনি এর বেশি আর কিছু বলতে রাজি হননি।

জানা যায়, শুক্রবার রাত ২টার দিকে উপজেলার চৌমুহনী পৌর এলাকায় বসতঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে অস্ত্রের মুখে এক কিশোরীকে ধর্ষণ করে ছাত্রলীগ নেতা সুমন। পরে মেয়েটি তার বাবা-মাকে বিষয়টি জানায়।  এ ঘটনায় নির্যাতিত ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে শনিবার ধর্ষক সুমনকে আসামি করে বেগমগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। এ পরই ধর্ষক সুমনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এর আগে ২১ অক্টোবর চাটখিল উপজেলায় প্রবাসীর স্ত্রীকে তার নিজ ঘরে অস্ত্রের মুখে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে নোয়াখালীর নোয়াখলা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মজিবুল রহমান শরীফ। ওই সময় ওই নারীকে বিবস্ত্র করে ছবি ও ভিডিও ধারণ করে রাখা হয়।

এ ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে চাটখিল থানায় মামলা করেন প্রবাসীর স্ত্রী। তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে শরীফকে নোয়াখলা ইউনিয়নের ইয়াসিন বাজার থেকে আটক করে পুলিশ।

এ ঘটনার পর তাকে যুবলীগ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

বাংলাপত্রিকা/এসআর

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন