দীর্ঘ এক যুগেও নাপ্পঞ্জা পাড়ায় উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি

ফাহিম মুনতাসীর শোভন, কক্সবাজার সদর প্রতিনিধি | বাংলা পত্রিকা স্পেশাল
প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ২৬ মার্চ ২০২০ | ০৬:৫৬:১০ পিএম
দীর্ঘ এক যুগেও নাপ্পঞ্জা পাড়ায় উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি
কক্সবাজার পৌরসভার আওতাভুক্ত হওয়ার প্রায় এক যুগ পার হলেও উন্নয়নের তেমন কোন ছোঁয়া লাগেনি কক্সবাজার পৌরসভার প্রবেশ পথ কেন্দ্রীয় বাসটার্মিনাল সংলগ্ন ৬ নং ওয়ার্ডের আওতাধীন ঐতিহ্যবাহী নাপ্পাঞ্জা পাড়া এলাকায়। এই এলাকায় পৌরসভার নাগরিক সুবিধা বলতে তেমন কিছু নেই।

স্থানীয় বাসিন্দাদের মতে কক্সবাজার পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডে প্রত্যেক এলাকায় আধুনিকতার ছোঁয়া লেগেছে। তবে এযাবতকাল কক্সবাজার পৌরসভার তরফে উন্নয়নের কোন প্রকার ছোঁয়া লাগেনি একমাত্র নাপ্পাঞ্জা পাড়ায়।

এই এলাকায় সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, একদিকে ময়লা আবর্জনার স্তূপ, নেই কোন বৈদ্যুতিক সড়ক বাতি, উন্নত ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় পয়ঃনিষ্কাশনের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হচ্ছে। যার কারণে পৌর নাগরিকদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি মারাত্মক পর্যায়ে চলে যাচ্ছে। রাস্তা-ঘাটের অবস্থা আরো খারাপ। এক কথায় ৬ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দারা আধুনিক নাগরিক সুবিধা থেকে প্রতিনিয়ত বঞ্চিত হচ্ছে।  

বর্তমানে নাপ্পাঞ্জা পাড়া মসজিদ রোডের রাস্তা ব্যতিত একপাশের ড্রেনটির নির্মাণ কাজ স্থানীয় বাসিন্দা জেলা পরিষদের ইঞ্জিনিয়ার (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) এর প্রচেষ্টায় এলজিআরডি অর্থায়নে সম্পন্ন  করা হয়েছে। নাপ্পাঞ্জা পাড়া তাঁত বোর্ডের পাশের রাস্তাটিও স্থানীয় বাসিন্দা অন্য এক ইঞ্জিনিয়ারের সার্বিক সহযোগীতায় রাস্তাটির উন্নয়নে কার্পেটিং এর কাজ করা হয়েছিল যা এখনো পর্যন্ত দৃশ্যমান রয়েছে।

এলাকার বিত্তশালীরা বহুতল দালান নির্মাণের মহাযজ্ঞ চালাচ্ছে। এই ভবন নির্মাণের জন্য যাবতীয় নির্মাণ সামগ্রী ট্রাক, ডাম্পার ও পিকাপ দিয়ে পরিবহন করার ফলে জনসাধারণের চলাচলের রাস্তাটির আরো করুন অবস্থা সৃষ্টি করেছে। স্থানীয় জনসাধারণের চেষ্টা তদবিরে মাঝে মাঝে পৌর কর্তৃপক্ষ রাস্তা উন্নয়নের উদ্যোগ হিসাবে পৌরসভার ইঞ্জিনিয়ার সার্ভেয়াররা রাস্তা পরিমাপ করেই চলে যায়। এর পর উন্নয়নের নাম গন্ধ পর্যন্ত পাওয়া যায়না বলে দাবী করেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

কোন এক অদৃশ্য শক্তির কারণে এই এলাকা অবহেলিত হিসাবে পড়ে রয়েছে সে সম্পর্কে স্থানীয় বাসিন্দাদের বোধগম্য হচ্ছেনা বলে জানান। এছাড়াও বর্ষাকালে সামান্য বৃষ্টিতেই রাস্তায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। যার ফলে জনসাধারণকে চলাচল করতে গিয়ে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

নাপ্পঞ্জা পাড়া এলাকাটি কক্সবাজার পৌরসভায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছে প্রায় দেড় যুগের কাছাকাছি হবে। এই সময়ের মধ্যে পৌরসভার পক্ষে কোন প্রকার উন্নয়ন করা হয়নি। মেয়র বদল হলেও বদল হয়নি পৌরসভার এই এলাকার উন্নয়ন চিত্র। সেই যেমনটি ছিল তার চেয়েও খারাপ হয়েছে ভাল করার দৃশ্যমান উদ্যোগ নাপ্পঞ্জা পাড়া বাসী দেখেনি।

এদিকে নির্বাচন আসলে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের উন্নয়নের আশ্বাস বাণী শোনানো হয়। এরকম আশ্বাসবাণী শুনতে শুনতে বিরক্ত হয়ে এলাকার সাধারণ মানুষ স্থানীয় কাউন্সিলর নিয়ে নানা ধরনের কটুক্তি করতে দেখা যায়। যে আশ্বাস বাণীর বাস্তবায়ন নির্বাচনের শেষে আর দেখা যায়না এমনটাই জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

এই ব্যপারে কক্সবাজার পৌরসভার মেয়রের বক্তব্য জানতে একাধিক বার মোবাইলে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হয়। মোবাইল রিসিভ না করায় মেয়রের বক্তব্য জানা যায়নি। স্থানীয় কাউন্সিলর ওমর ছিদ্দিক লালুর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি আমাদের বিশেষ প্রতিনিধিকে জানান, নাপ্পঞ্জা পাড়া এলাকার রাস্তা ও ড্রেইন নির্মাণ প্রকল্পের টেন্ডার প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। টেন্ডার হয়ে গেলেই কাজ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় কাউন্সিলর।

তিনি আরো জানান, উক্ত এলাকায় এলজিএসপির অধীনে আরো একটি উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহন করা হয়েছে এবং অচিরেই সেই উন্নয়ন প্রকল্পের কাজও শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন।

বাংলাপত্রিকা/এসএস

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন