তাপস হত্যার বিচারের দাবিতে চবিতে মৌন মিছিল

চবি, প্রতিনিধি | শিক্ষা ও ক্যাম্পাস
প্রকাশিত: রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ০৭:১৬:২২ পিএম
তাপস হত্যার বিচারের দাবিতে চবিতে মৌন মিছিল
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ কর্মী তাপস সরকারের হত্যাকারীদের দ্রুত বিচারের দাবিতে চবিতে মৌন মিছিল ও সমাবেশ করেছে তাপসের সহপাঠী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। মিছিলটি শাহ আমানত হল থেকে বের হয়ে প্রশাসনিক ভবনের সামনে গিয়ে শেষ হয়। এসময় শিক্ষার্থীরা তাপস হত্যার বিচারের দাবিতে মুখে কালো ফিতা বেঁধে ও বিভিন্ন প্লেকাট হাতে অংশ নেয়।  তাপস স্মৃতি সংসদের সদস্য সচিব আদনান সৈকতের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সংগঠনটির যুগ্ম আহ্বায়ক সাদাফ খান, তাপসের বন্ধু শরিফ উদ্দিন,আহ্বায়ক শফিকুল ইসলাম।

 তাপস স্মৃতি সংসদের যুগ্ম আহ্বায়ক সাদাফ খান বলেন, ‘তাপস পরিবারের অনেক স্বপ্ন নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছিল। মাত্র ২৩দিনে আবরার হত্যার বিচার হলেও ৫বছরেও হয়নি তাপস হত্যার বিচার। হত্যাকারীদের সামাজিকভাবে বয়কট এবং হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।’

শহীদ তাপসের বন্ধু শরিফ উদ্দিন বলেন, ‘হত্যাকারীরা প্রশাসনের সামনে দিয়ে চলাফেরা করলেও প্রশাসন কেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে না তা প্রশ্নবিদ্ধ। বিচার হীনতার যে সংস্কৃতি চালু হয়েছে তা বন্ধ করতে হবে। বন্ধু হত্যার ন্যায় বিচারের দাবি জানাই।’

আহ্বায়ক শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘তাপসের মা একবুক স্বপ্ন নিয়ে তাপসকে এই বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি করায়।তাপসের মা যখন শুনে তার ছেলের হত্যাকারীরা বিশ্ববিদ্যালয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে  তাপসের মা শহীদ মিনারে আমরণ অনশন করবে জানায়। তাপস ২০কিলোমিটার দূরের স্কুলে পড়েছিল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে লাশ হয়ে ফিরে যেতে নয়। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে জানতে চাই তাপস হত্যার বিচারে আর কতদিন লাগবে?’

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ১৪ ডিসেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহজালাল ও শাহ আমানত হলে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষ হয়। এ সময় শাহজালাল হল থেকে ভিএক্সের ছোড়া গুলিতে আহত হন শাহ আমানত হলের সংস্কৃত বিভাগের তাপস সরকার। পরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় হাটহাজারী মডেল থানায় ৩০ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়।

বাংলাপত্রিকা/এসএ

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন