বিএনপির বিশৃঙ্খলায় আ.লীগ প্রস্তুত আছে: নানক

নিজস্ব প্রতিবেদক | রাজনীতি
প্রকাশিত: শনিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯ | ০৮:০৩:৫৮ পিএম
বিএনপির বিশৃঙ্খলায় আ.লীগ প্রস্তুত আছে: নানক
বিএনপি বিক্ষোভের প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবীর নানক বলেছেন, শান্তিপূর্ন কর্মসুচি পালন করেন। আর যদি কর্মসূচির নামে বিশৃঙখলা সৃষ্টি করেন- দেশে অশান্তি করেন তাহলে আমরাও মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছি।

শনিবার বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বিএনপিকে এমন হুশিয়ারি করেন।

জাহাঙ্গীর কবীর নানক বলেন, দূনীতির বরপুত্র, সন্ত্রাসের জন্মদাতা তারেক রহমান। সারাদেশে খুনের কারবালা করেছিল হাওয়া ভবন থেকে। আজ সে দেশ থেকে পালিয়ে গেছে। কেন পালিয়ে গেলেন তারেক, দেশে আসেন, সাহস থাকলে আইনের মোকাবেলা করেন।

খালেদা জিয়ার মামলার প্রসঙ্গ আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন,  দূর্তিণীর দায়ে খালেদা জিয়া কারাগারে আছেন। আইন আদালত তাকে সাজা দিয়েছে। আদালতে বিক্ষোভ, ভাংচুর করে খালেদার মুক্তি আসবে না। আইনে লড়াইয়ে মুক্ত করতে হবে, ভাঙচুর করে নয়।

তিনি বলেন, বিএনপির সময়ে বগুড়া ছিল সন্ত্রাসীদের অভয়ারন্য। আজ সেখানে সুন্দর, শান্তিময় পরিবেশ। জননেত্রী শেখ হাসিনা সব হারিয়ে দেশের মানুষের কল্যানে কাজ করছেন। তিনি দু:সাহসিক নেত্রী। তাই উন্নয়ন এগিয়ে নিতে সংগঠন শক্তিশালী করতে হবে। কমিটিতে কর্মীদের মূল্যায়ন  করতে হবে। দূ:সময়ে নেতাকর্মী আর কমিটি গঠনের সময় আত্মীয় স্বজন, অনুপ্রবেশকারীরা ঢুকবে, তা হবে না।

সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন,  দেশকে রাজনীতি শুন্য করতে জিয়াউর রহমান জাতীয় চারনেতাকে হত্যার পরিকল্পনা করেছিলেন। জিয়া মূল খলনায়ক। তদন্ত কমিশন গঠন করে জিয়াউর রহমানের বিচার করতে হবে। না হলে দেশের ইতিহাস অসম্পুর্ন থাকবে। খন্দকার মোস্তাক বেঈমানী করেছে, জাতীয় চারনেতা বঙ্গবন্ধুর রক্তের সাথে বেইমানী করেন নি বলেই নির্মম হত্যার শিকার হয়েছেন। আজও সেই চক্রান্তকারী তাদের চক্রান্ত অব্যহত রেখেছে। তিনি সকল চক্রান্ত রুখে দিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে সকলকে একসাথে কাজ করার আহবান জানান।

জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক সুলতান মাহমুদ খান রনির সঞ্চালনায় সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী সিটি কর্পোারেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য নুরুল ইসলাম ঠান্ডু,  কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য মেরিনা জাহান কবিতা, বগুড়া-৫ আসনের এমপি হাবিবর রহমান, ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাহমুদ হাসান রিপন, বর্তমান ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক আহসান হাবিব, ও ঢাকা মহানগর উত্তর স্বেচ্ছসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কে এম মনয়ারুল ইসলাম বিপুল প্রমুখ।

বাংলাপত্রিকা/এসআর

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন