এক সিরাজই চবি'র অনেক সমস্যার কারণ

আরাফাত রায়হান, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি | শিক্ষা ও ক্যাম্পাস
প্রকাশিত: সোমবার, ২ ডিসেম্বর ২০১৯ | ১১:৫৫:৫৭ এএম
এক সিরাজই চবি'র অনেক সমস্যার কারণ
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক সিরাজ উদ দৌলার বিরুদ্ধে বিগত সময়ের মতো বর্তমানেও অভিযোগের শেষ নেই। এমন কোন অপকর্ম নেই যার অভিযোগ  সিরাজ উদদৌলার বিরুদ্ধে নেই। হত্যা, গ্রুপিং, দুর্নীতি সব অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) প্রক্টর থাকাকালীন অধ্যাপক সিরাজ উদ দৌলার বিরুদ্ধে উঠেছিল ছাত্র হত্যায় মদদ দেওয়ার অভিযোগ। ছাত্রলীগের মধ্যে গ্রুপিং বাঁধিয়ে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

এর আগে ২০১৩ ও ২০১৪ সালে নানা অনিয়মে অভিযুক্ত প্রক্টর সিরাজ উদ দৌলার পদত্যাগের দাবিতে দিনের পর দিন বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করে রেখেছিল ছাত্রলীগ।

২০১৪ সালের ১৪ ডিসেম্বর ছাত্রলীগকর্মী ও শাটল ট্রেনের বগিভিত্তিক গ্রুপ সিএফসির তাপস সরকারকে চবি শাহ আমানত হলে গুলি করে হত্যা করে শাটল ট্রেনের বগিভিত্তিক আরেক গ্রুপের নেতাকর্মীরা।

অভিযোগ আছে, তৎকালীন প্রক্টর সিরাজ উদ দৌলা ছিলেন ওই গ্রুপের নিয়ন্ত্রক।অভিযোগ উঠে তার মদদেই হয় এ হত্যাকাণ্ড।

এ ঘটনার পর প্রক্টরের পদত্যাগের দাবিতে তৎকালীন উপাচার্য অধ্যাপক আনোয়ারুল আজিম আরিফকে তার কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে ছাত্রলীগ। ওই দিন উপাচার্য দপ্তরে ইটপাটকেলও নিক্ষেপ করে তারা।

সেই বহুল বিতর্কিত শিক্ষক সিরাজ উদ দৌলা এবার হয়েছেন ছাত্র উপদেষ্টা। ছাত্রলীগের একাংশের অভিযোগ নিয়োগ পাওয়ার পর ক্যাম্পাসে আধিপত্য কায়েমে তিনি আবার তার অংশের ছাত্রলীগকে দিয়ে মারধর ও সংঘাতের ঘটনা ঘটাচ্ছেন। যাদের একজন তাপস হত্যায় অভিযুক্ত ‌ভিএক্স গ্রু‌পের নেতা মিজানুর রহমান বিপুল ও প্রদীপ চক্রবর্তী দূর্জয়। দুজনই তাপস সরকার হত্যা মামলার চার্জশিটভুক্ত পলাতক আসামি।

সিরাজ উদ দৌলা ছাত্র উপদেষ্টা হওয়ার পর তাদের অনুসারীদের সঙ্গে ছাত্রলীগ শাখা সভাপতির পক্ষের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। সর্বশেষ গতকাল রবিবার সন্ধ্যায় সভাপতি পক্ষের দুই নেতাকে কুপিয়ে জখম করা হয়। এর সূত্র ধরে দুই পক্ষ ক্যাম্পাসে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

সভাপতি রেজাউল হক রুবেলের পক্ষের ছাত্রলীগের অভিযোগ, ১৪ ডিসেম্বর তাপস হত্যার বার্ষিকী পালন বানচাল করতে সিরাজ উদ দৌলা তার বাহিনী দিয়ে ক্যাম্পাস অস্থিতিশীল করতে চাচ্ছে। হামলার প্রতিবাদে আজ থেকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে চলছে অনির্দিষ্টকালের অবরোধ।

এমন বিস্তর অভিযোগের বিষয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক সিরাজ উদ দৌলার কাছে জানতে কয়েকবার, কয়েকটি মাধ্যমে যোগাযোগ করেও তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

বাংলাপত্রিকা/আরইউ

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন