ভারতে ১০টাকা, বাংলাদেশে ১৪০টাকা কেজি পেঁয়াজ

বাংলা পত্রিকা ডেস্ক | আন্তর্জাতিক
প্রকাশিত: শুক্রবার, ১ নভেম্বর ২০১৯ | ০২:৩০:৫৪ পিএম
ভারতে ১০টাকা, বাংলাদেশে ১৪০টাকা কেজি পেঁয়াজ
বাংলাদেশে পেঁয়াজের কেজি ১৪০-১৫০ টাকা বিক্রি হলেও ভারতে সেই পেঁয়াজের বাজারে ধস নেমেছে। ভরতে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৬ থেকে ১০ রুপিতে বিক্রি হচ্ছে। যা বাংলাদেশ টাকায় ১২টাকারও কম।

সঠিক মূ্ল্য না পাওয়ায় ভারতের ব্যবসায়ীরা সরকারের উপর ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বলে গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, বুধবার দেশটির লাসাগাঁও অনলাইন মার্কেটে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ১০ রুপি দরে বিক্রি হয়েছে। ভারতের কৃষকদের আন্দোলনে কর্নাটকে উৎপাদিত পেঁয়াজের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে সে দেশের সরকার। এ বিষয়ে দেশটির হর্টিকালচার কমিশনারের অনুমতি মিলেছে কৃষকদের। গত ২৮ অক্টোবর থেকে চেন্নাই সমুদ্রবন্দর দিয়ে প্রতি চালানে সর্বোচ্চ ৯ হাজার টন পেঁয়াজ রফতানি করছেন কর্নাটকের কৃষকরা। কর্নাটকের পাশাপাশি কলকাতার ব্যবসায়ীরাও পেঁয়াজ রফতানি নিষেধাজ্ঞা তুলে দিতে তাদের রাজ্য সরকারকে চাপ দিচ্ছেন।

তারা বলছেন, এখন আর পেঁয়াজ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা রাখার কোনো যৌক্তিক কারণ দেখছি না আমরা। মহারাষ্ট্রে নির্বাচন শেষ হয়ে গেছে। পেঁয়াজের বাজারে ধস নেমেছে। আমরা আর্থিক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি।

ভারতীয়রা বলছেন, এর আগে এতো কমদামে পেঁয়াজ বিক্রি হয়নি ভারতে। এটিই ভারতে পেঁয়াজের সর্বনিম্ন দর। পেঁয়াজের দাম এমন পানির দরে চলে আসায় বিপুল পরিমাণে লোকসানে পড়েছেন সেদেশের ব্যবসায়ীরা। দরপতনের জন্য সম্প্রতি চলমান পেঁয়াজ রফতানি নিষেধাজ্ঞাকে দায়ি করছেন তারা।

পেঁয়াজ রফতানি নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার দাবি জানিয়েছেন দেশটির কৃষক এবং ব্যবসায়ীরা।

গত ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে ভারত। এর পর থেকে পেঁয়াজের দাম কয়েক দফায় বৃদ্ধি পেয়ে বর্তমান বাজর দর ১৪০-১৫০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। যা প্রতিনিয়িত বাড়ছে বলে অভিযোগ ক্রেতাদের।

বাংলাপত্রিকা/এসএ

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন