‘মিশরের পেঁয়াজ এলে দাম ৮০ টাকার মধ্যে হবে’

বাংলা পত্রিকা ডেস্ক | অর্থনীতি
প্রকাশিত: রবিবার, ২৭ অক্টোবর ২০১৯ | ০৫:৩২:৩৯ পিএম
‘মিশরের পেঁয়াজ এলে দাম ৮০ টাকার মধ্যে হবে’
বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সী বলেছেন, আমি আশাবাদী এক সপ্তাহের মধ্যে মিশরের পেঁয়াজ চলে আসবে। যদি আসে তাহলে হয়তো আমরা ৮০ টাকার মধ্যে পেঁয়াজ সরবরাহ করতে পারবো। তবে কষ্টটা বোধ হয় আমাদের আরও একটা মাস করতে হবে। কারণ আমাদের নিজেদের (পর্যাপ্ত পেঁয়াজ মজুদ) নেই।

রোববার দুপুরে চট্টগ্রামের আউটার স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড এক্সপোর্ট ফেয়ারের (বিআইটিএফ) উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (সিএমসিসিআই) মাসব্যাপী এ মেলার আয়োজন করেছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, এবার আমাদের শিক্ষা হয়েছে। কৃষিমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে। উনি বলেছেন খুব চেষ্টা করবেন পেঁয়াজ উৎপাদন বাড়াতে। আমাদের যেন আর বাইরের ওপর নির্ভর করতে না হয়। এবার হয়তো কষ্ট হবে। আর কখনো কোনো কোনো কষ্ট নতুন দুয়ার খুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করে। আশাকরি, আগামী বছর অবস্থার উন্নতি হবে।

চট্টগ্রামে টিসিবির কার্যক্রম না থাকা প্রসঙ্গে মন্ত্রীর বলেন, ঢাকায় ফিরে কালকেই এ ব্যাপারে কথা বলবো। যদি সম্ভব হয়, ১০টি পয়েন্টে পেঁয়াজ বিক্রির কথা বলবো। এটাই আমার কথা।

পেঁয়াজে ভারতনির্ভরতা প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, চাল আমাদের উদ্বৃত্ত। আলু আমাদের ৩০ লাখ টন উদ্বৃত্ত। আমরা ভারতের ওপর নির্ভরশীলতা কমাতে চাই তা না, আমরা নিজেরাই স্বয়ংসম্পূর্ণ হতে চাই। আমাদের সব চেষ্টা হলো আগামীতে যেন নিজেরাই এসব জিনিস উৎপাদন করতে পারি।

বাজার মনিটরিং প্রসঙ্গে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, মজুদকারীদের বিরুদ্ধে শক্ত ব্যবস্থা নিচ্ছি। সমস্যাটা হচ্ছে হঠাৎ করে চাপ দিলে তারা বিগড়ে গেলে মানুষের কষ্ট আরও বাড়বো। এদিকে চাপের কারণে কিছু পেঁয়াজ পচেও গেছে। আমরা বাজার মনিটরিং করতে যাই। কিন্তু কাউকে জেলখানায় নিয়ে ভরবো সেই রকম মানসিকতা নেই। আমরা তাদের প্রোঅ্যাকটিভ করতে চাই, বোঝাতে চাই। তাতে কিছু কাজ হয়েছে। সবচেয়ে বড় কথা, সমস্যাটা আরও এক মাস থাকবে। মিশরের পেঁয়াজ ঢুকলে দাম কমে আসবে।

বাংলাপত্রিকা/এসআর

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন