রাবির ভর্তি পরীক্ষা জালিয়াতিরোধে তৎপর প্রশাসন

আসিফ, রাবি প্রতিনিধি | শিক্ষা ও ক্যাম্পাস
প্রকাশিত: শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯ | ১০:২৮:৫৪ পিএম
রাবির ভর্তি পরীক্ষা জালিয়াতিরোধে তৎপর প্রশাসন
আগামী ২১ ও ২২ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) ২০১৯-২০ সেশনের ভর্তি পরীক্ষা। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কর্মদক্ষতার সাথে পরীক্ষা পরিচালনা করবেন এবং ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি ও অসদুপায় অবলম্বনরোধে প্রশাসন বেশ তৎপর আছেন বলে শনিবার সকাল ১১টায় তাজ উদ্দীন আহমেদ সিনেট ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এসব তথ্য জানিয়েছেন উপাচার্য এম আব্দুস সোবহান।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পুলিশসহ প্রক্টরিয়াল বডি, বিভিন্ন সংস্থা, স্টেক হোডাররা তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। জনসংযোগ দফতর পরীক্ষায় অসদুপায়, জালিয়াতিরোধে কর্মকান্ড পরিচালনা করছে। ছাত্র উপদেষ্টা  ও প্রক্টর সর্ব সাকুল্যে সহায়তায় নিয়োজিত আছেন। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের উদ্যোগে বসানো হয়েছে অনেকগুলো হেল্পডেস্ক। কাজ করবে মেডিকেল টিম। মহিলা অভিভাবকদের জন্য রাত্রিযাপন করার ব্যবস্থা রয়েছে ছাত্রী জিমনেসিয়ামে। নারী-পুরুষ অভিভাবকদের বসার জন্য মিলনায়তন এবং টিএসসিসি খোলে দেওয়া হবে।

আরো বলা হয়, ক্যাম্পাসের বাহিরে মেস মালিকরা যে অবৈধ অর্থ আদায় করে সে বিষয়ে প্রশাসনের দৃষ্টি আছে। নিরাপত্তার স্বার্থে নিযুক্ত আছে পুলিশ, র্যাবসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা। কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা প্রতিরোধে নিরাপত্তা বাহিনী চেষ্টা করে যাচ্ছে।

উপাচার্য বলেন, সকলের সহযোগিতায় এবারের ভর্তি পরীক্ষায় কোনো সমস্যার সৃষ্টি হবে না বলে আশা করা যায়। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সবসময় সুন্দরভাবে পরীক্ষা গ্রহণ করে এবারও ব্যতিক্রম হবে না। অসদুপায়ী ও জালিয়াত চক্র যাতে সুবিধা না পায় সে ব্যাপারে আমরা সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিতে প্রস্তুত আছি। মেস মালিকদের সাথে কথা হয়েছে তারা অহেতুক অর্থ নিবে না। সর্বোপূরি সুন্দর একটা আগামীর সম্ভাবনায় আছি আমরা।

উল্লেখ্য, ২০১৯-২০ সেশনের ভর্তি পরীক্ষা তিনটি (ABC) ইউনিটের মাধ্যমে সম্পন্ন হবে। লিখিত ও এমসিকিউ পদ্ধতিতে ভর্তি পরিক্ষা হবে । গত বছরেই লিখিত পরীক্ষা সংযোজনের কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত তা বাস্তবায়ন হয়নি । তবে এ বছর থেকে এমসিকিউ এর পাশাপাশি লিখিত প্রশ্নেরও উত্তর দিতে হবে । MCQ ৫০ নম্বর এবং লিখিত পরীক্ষা ৪০ নম্বর। পরীক্ষায় কোনো ধরনের ডিভাইস ব্যবহার করা যাবে না। এবছর কোটাসহ মোট আসন সংখ্যা ৪ হাজার ৭১৩ টি। আবেদন জমা পড়েছে ৭৮ হাজার ৯০ টি।

বাংলাপত্রিকা/এসআর

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন