ভৈরবে কোটি টাকা মূল্যের অবৈধ কারেন্ট জাল জব্ধ করেছে ভ্রাম্যমান আদালত

পলাশ আহমেদ, ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯ | ১১:৪৬:০০ এএম
ভৈরবে কোটি টাকা মূল্যের অবৈধ কারেন্ট জাল জব্ধ করেছে ভ্রাম্যমান আদালত
ভৈরব এ কোটি টাকা মূল্যের অবৈধ কারেন্ট জাল জব্ধসহ তিন জনকে করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

জানাগেছে, দীর্ঘ দিন ধরে ভৈরব বাজারে অসাধু জাল ব্যবসায়ীরা সরকার নিষিদ্ধ অবৈধ কারেন্ট বিক্রি করে আসছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চালানো হয়। ফলে জাল ব্যবসায়ী আব্দুর রউফ মিয়ার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আলামিন স্টোরে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণে অবৈধ কারেন্ট জাল উদ্ধার করে ভ্রাম্যমান আদালত।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আনিসুজ্জামান বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে সরকার নিষিদ্ধ প্রায় ৩০ লাখ মিটার কারেন্ট কারেন্ট জাল জব্ধ করেছি। যার আনুমানিক বাজার মূল্য প্রায় কোটি টাকা। এছাড়াও অবৈধ এই কারেন্ট জাল বিক্রির সাথে জড়িত থাকার দায়ে ৩জনকে আটক করা হয়েছে। তাদেরকে ১২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। তাছাড়া জব্ধকৃত এসব কারেন্ট জাল আগুণে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়েছে। এই অভিযান অব্যহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

অভিযানটি পরিচালনা করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেট মো. আনিসুজ্জামান। এতে সহযোগিতা করেন উপজেলা মৎস কর্মকতা মো. লতিফুর রহমান। এসময় ভৈরব রিপোটার্স ক্লাব ও ইউনিটির সভাপতি মোঃ তাজুল ইসলাম তাজ ভৈরবী ও সাধারণ সম্পাদক আলাল উদ্দিন ভৈরব থানা পুলিশের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

আটককৃতরা হলেন, মো. যোবায়ের মিয়া, মো. সুমন মিয়া ও মো. মিলন মিয়া। এসময় তাদেরকে ১২ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার লুবনা ফারজানা জানান, ৯ অক্টোবর থেকে ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত সরকার ঘোষিত মা ইলিশ ধরা, বিক্রয় করা, মজুদ ও পরিবহণ নিষেধ করে দিয়েছে। এর সফলও আমরা পেয়েছি বিগত বছর গুলোতে। অবৈধ এই কারেন্ট জাল জব্ধের মাধ্যমে আমরা ইলিশসহ ভিবিন্ন প্রজাতির মাছ রক্ষা করতে সক্ষম হবো। এই অভিযান অব্যহত থাকবে বলে তিনি জানান।

বাংলাপত্রিকা/এসএ

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন