রেলের জমি থেকে উচ্ছেদ নয়, বন্দোবস্ত চাই

মো. মিঠু মিয়া, নীলফামারী প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: বুধবার, ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ০৯:৫৫:২১ পিএম
রেলের জমি থেকে উচ্ছেদ নয়, বন্দোবস্ত চাই
রেলের জমিতে বসবাসকারীদের উচ্ছেদ নয়, বন্দোবস্ত প্রদানের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছে বাস্তহারা মানুষদের সংগঠন ‘অধিকার’।

বুধবার দুপুরে নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের রেলওয়ে পুলিশ ক্লাবে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।  

এতে বক্তব্য দেন সৈয়দপুর উপজেলা চেয়ারম্যান ও অধিকার সভাপতি মোখছেদুল মোমিন, শহর আওয়ামীলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম বাবু প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ১৯৪৭ সালে ভারতের উড়িষ্যা, বিহার ও পশ্চিমবঙ্গের অসংখ্য বিহারী ও বাঙ্গালী সৈয়দপুরে এসে রেলওয়ে কারখানায় কর্মসংস্থান, ক্ষুদ্র শিল্প ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। পাশাপাশি ঘরবাড়ি স্থাপন করেন বসবাসের জন্য। একই সাথে রেলওয়ের জমিতে গড়ে তোলা হয় ৩০টি শিল্প প্রতিষ্ঠান ৩৫টি ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ ভবন, গোলাহাট কবরস্থান ও ২২টি বিহারী ক্যাম্প রয়েছে। দীর্ঘ ৭২ বছর রেলওয়ের এসব জমিতে তারা বসবাস করে আসলেও আগামী ২৯ ও ৩০ সেপ্টেম্বর রেল বিভাগ সৈয়দপুর শহরের রেলের জমিতে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করার ঘোষণা দেওয়ায় আতংকিত হয়ে পড়েছে তারা। আর এটি বাস্তবায়ন করা হলে শহরের প্রায় ২০ হাজার পরিবার গৃহহীন হয়ে।

মোখছেদুল মোমিন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ১১লাখ রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিয়ে মানবতার ‘মা’ হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন। একই ভাবে সৈয়দপুরের ভূমিহীনদের উচ্ছেদ না করে রেলের জমি বন্দোবস্ত দিয়ে আরো একটি দৃষ্টান্ত স্থাপন করবেন।

রেলওয়ের বিভাগীয় ভূমি কর্মকর্তা নুরুজ্জামান বলেন, বাংলাদেশ রেলওয়ের ঐহিত্য ফিরিয়ে আনতে যেসব জমি প্রয়োজন শুধু সেগুলোর উপরে গড়ে উঠা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে।
 
বাংলাপত্রিকা/এসএ

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন