কুষ্টিয়ায় স্বামী, শাশুড়ী ও ননদ দ্বারা নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ

খন্দকার সাদিকুল আলম, ইবি থানা প্রতিনিধি | সারাদেশ
প্রকাশিত: সোমবার, ২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ০৮:২৯:২০ পিএম
কুষ্টিয়ায় স্বামী, শাশুড়ী ও ননদ দ্বারা নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ
কুষ্টিয়ার কুমারখালী, সদকী ইউনিয়নের তারাপুর গ্রামের আব্দুল কাদেরের পুত্র কল্লোল হোসেন তার মা বিউটি খাতুন এবং বোন কাকলি খাতুন দীর্ঘদিন যাবৎ শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে আসছে তার স্ত্রী মদিনা খাতুন কে।

মদিনা খাতুন ও তার পরিবারের ভাষ্যমতে ২০১৮ সালের মে মাসে কল্লোলের মা বিউটি খাতুন এর পীড়াপীড়িতে তার সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর হতেই কল্লোল তার স্ত্রীকে বিভিন্ন উছিলায় মারধর করে এবং তার মা ও বোন ও বিভিন্ন অজুহাতে তার গায়ে হাত তোলে বলে জানায়। মদিনা খাতুন আকুতি করে বলে তার পেটের উপর উঠে কল্লোল পা দিয়ে তাকে পারাতে থাকে এবং এসময় তার শাশুড়ি ও ননদ তাকে ধরে রাখে। বিংশ শতাব্দীর এই সভ্য যুগে যৌতুকের দাবিতে অসভ্য বর্বর আচরণ দীর্ঘদিন ধরে মদীনার উপর করে আসছে কল্লোলের পরিবার।

এ বিষয়ে কল্লোলের মা বিউটি খাতুনকে মারপিটের কথা জিজ্ঞাসা করলে সে অস্বীকার করে  উল্টো মদিনা ও তার পরিবারকে দোষারোপ করে এবং যৌতুকের দাবি সে পুরোপুরি অস্বীকার করে।

মুঠোফোনে কল্লোলের সাথে যোগাযোগ করা হলে সে জানায় ৩০ আগস্ট ঘটনার দিনই সে শুধু তার স্ত্রীর গায়ে হাত তুলেছে ইতিপূর্বে সে তার স্ত্রীকে কখনোই নির্যাতন করেনি।

কল্লোলের স্বামী পরিত্যাক্তা বোন কাকলি কেন তার ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে মারপিট করে এমন প্রশ্নের জবাবে সে বলে তাকে কেনো মিথ্যা অভিযোগে অভিযুক্ত করা হচ্ছে এ বিষয়ে সে কিছু জানে না।

এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক এলাকাবাসী জানায় কল্লোলের মা বিউটি খাতুন মারকুটে মহিলা সে কথায় কথায় যার তার গায়ে হাত তোলে যে কারণে তারা যখন পুত্রবধূকে নির্যাতন করে সে সময় ভয়ে কেউ তাদের বাড়িতে আসে না পাছে উল্টো ঝামেলায় পড়ে যায় এই আতঙ্কে।

মদিনা খাতুন এই স্বামীর সাথে সংসার করবে কিনা প্রশ্নের জবাবে জানায় তার জীবনের নিরাপত্তা কোথায় যদি তাকে মেরে ঝুলিয়ে রেখে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেয় তাহলে সেই দায়িত্ব কে নেবে?

৩০ আগস্ট ঘটনার দিন মদিনার উপর পাশবিক নির্যাতনের খবর পেয়ে তার ভাই মো. আসলাম শেখ লোকজন নিয়ে তার শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এসে ভর্তি করে এবং সে বাদী হয়ে কুমারখালি থানায় দরখাস্ত প্রেরণ করেছে। অবিলম্বে কল্লোল তার মা বিউটি খাতুন এবং তার বোন কাকলির এই অমানবিক নির্যাতনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি কামনা করেছে মদিনার পরিবার।

বাংলাপত্রিকা/এসএ

খবরটি গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন